বিয়ের পিড়িতে বসা হলো না এক কৃষকের,আহত-৩


খাদেমুল মোরসালিন শাকীর, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ
 

বিয়ের পিড়িতে বসা হলো না এক কৃষকের। ফসল ঘরে তুলতে গিয়ে বজ্রপাতে মৃত্যু হয় ওই কৃষকের। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শনিবার নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের ভেড়ভেড়ী উত্তরপাড়া গ্রামে। গতকাল শনিবার রাতে পার্শ্ববতী বালাপাড়া গ্রামে সে বিয়ের পিড়িতে বসতেন বলে এলাকাবাসী জানায়। এতে আহত হয়েছে ৩ জন।

বজ্রপাতে মৃত্যু ব্যক্তি নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের ভেড়ভেড়ী উত্তরপাড়া গ্রামের মোকতার হোসেনের পুত্র কবিনুর রহমান (মাহেল) ২৬। এলাকাবাসী সূত্র জানায়- গতকাল শনিবার সকালে উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের ভেড়ভেড়ী উত্তরপাড়া গ্রামের কবিনুর রহমান (মাহেল) আরও ৩ জন শ্রমিকসহ ধান কাটতে যায়। এসময় আকাশ কালো হয়ে হালকা ঝড়ো বাতাসসহ গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি শুরু হয়। বৃষ্টির সাথে বজ্রপাত পড়লে ওই কৃষকসহ চার জন গুরুত্বর আহত হয়। 

বজ্রপাতে আহতদের দ্রুত কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মাহেলকে মৃত্যু ঘোষণা করে। ওই কৃষক আজ শনিবার পার্শ্ববকতী গ্রামে বিয়ের পিড়িতে বসতেন বলে এলাকাবাসী জানায়। অন্য আহতদের মধ্যে একই গ্রামের মৃত্যু মফেল উদ্দিনের পুত্র রফিকুল ইসলাম (৪৫), মজিদুল ইসলামের পুত্র স্বাধীন ইসলাম (৩২) ও খোটেয়া মামুদের পুত্র নাজমুল ইসলামকে (৩৬) কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। 

এদের মধ্যে রফিকুল ইসলাম ও নাজমুল ইসলামকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর কর হয়।পুটিমারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু সায়েম লিটন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন- সকালে কবিনুর রহমান (মাহেল) ধান কাটতে গেলে বজ্রপাতে তার মৃত্যু হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য