নীলফামারীতে দীর্ঘ ১ মাসেও মেলেনি কিশোরী আফরোজার সন্ধান

রংপুর ব্যুরো অফিসঃ  

৩০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যার পর ১৪ বছরের কিশোরী স্কুল ছাত্রী আফরোজা আক্তার মুদির দোকানে খরচ করতে গেলে একদল লম্পট জোড় করে মটর সাইকেলে তুলে নিয়ে যায় আফরোজাকে। এরপর দীর্ঘ একমাস পার হয়ে গেলেও মেলেনি কিশোরী আফরোজার সন্ধান। এ বিষয়ে বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে মেয়ের বাবা মোঃ দেলোয়ার হোসেন। ঘটনাটি ঘটেছে নীলফামারী সদর উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের আদর্শ গ্রামে।

 অভিযোগে বলা হয় স্থানীয়রা জানায় সোনারায় হাজীপাড়া মৃত রহিম উদ্দিন এর ছেলে মোঃ দেলোয়ার হোসেন ওরফে দেলো ডাক (৩৫) এবং আরো দুই জন শফিকুল ইসলাম ভেলু (৩৫) আলমগীর হোসেন (৩০) আফরোজা আক্তার সন্ধ্যার পর মুদির দোকানে খরচ করতে আসলে দুইটি মটর সাইকেল আফরোজা আক্তার এর পথ রোধ করে জোড় পূর্বক তুলে নিয়ে যায়। 

দীর্ঘ ১ মাস কেটে গেলেও মেয়ের কোন সন্ধান দিতে পারেনি কেউ। এ বিষয়ে সোনারায় ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান বলেন সোনারায় আদর্শ গ্রাম থেকে কিশোরীকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আমি মেয়ের বাবাকে নিয়ে থানাতে গিয়েছি। এখনও আফরোজার সন্ধান পাইনি। 

দীর্ঘ দিনেও মেয়ে আফরোজার সন্ধান না পাওয়া ও আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় ইন্সপেক্টর জেনারেল অফ পুলিশ (আইজিপি) পুলিম হেড কোয়াটার্স ঢাকায় অভিযোগ করেন মেয়ের বাবা দেলোয়ার হোসেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এলাকার একটি শক্তিশালী কুচক্রি মহল দোষী আসামীদের বাঁচাতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। 

মামলার বাদী মেয়ের বাবা মোঃ দেলোয়ার হোসেন সহ পরিবারকে হত্যা করে গুম করা হবে বলে হুমকি দিচ্ছে একই এলাকার মিজানুর, সুকুমার, বেলাল এবং সাইফুল। চরম নিরাপত্তায় হীনতায় ভূগছে দেলোয়ার হোসেন এর পরিবার। আসমীরা গ্রেফতার না হওয়ায় এলাকায় দেখা দিয়েছে চরম উত্তেজনা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য