৯৯ হাজার ৯৬৫ হেক্টর জমিতে আমন ধান গাছে পোকা মাকড়ের উপদ্রব


মো. কামরুল ইসলাম কামু পঞ্চগড়ঃ 

পঞ্চগড় জেলায় প্রতিকূল আবহাওয়ায় আমান ধানের গাছে পোকা- মাকড়ের উপদ্রব বেড়ে গেছে। আমন ধান জেলা কৃষি সম্প্রসার বিভাগ জানায় ‘এবারে মোট ৯৯ হাজার ৯৬৫ হেক্টর জমিতে আমন ধান রোপন করা হয়েছে।

এদিকে ইতিমধ্যে রোপন করা আমন ধান গাছে পাতা মোড়ানো পোকা পোকার আক্রমন ও গোড়া পঁচন দেখা দিয়েছে। সরজমিনে দেবীগঞ্জের চেংঠিহাজরা ডাঙ্গা , দন্ডপাল, পামুলী সহ জেলার অন্যান্য এলাকায় এই মাজরা পোকা ও গোড়া পঁচনে কৃষকরা ধান ক্ষেত্রে ঔষুধ প্রয়োগ করছেন। ওই চেংঠি হাজরা এলাকার সোরায়ার্দী জানান ‘কিসমত বাগদহ, দন্ডপাল ও চুনিয়াপাড়ার কৃষকরা এই প্রতিকুল পরিস্থিতি সামলাতে জমিতে ঔষুধ দিচ্ছেন। 

এছাড়া ওই এলাকায় আমন ধানের গাছে ইঁদুরের উপদ্রব বেড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন সেখানকার স্থানিয় কৃষকরা। তারা জানায় ‘ ইঁদুর আমান গাছের কেটে দিচ্ছে’। ঠিক গাছের মাঝখানে।অতি বৃষ্টিপাত আর প্রতিকুল পরিস্থিতিতে রোপন করা আমন চারা স্বপ্নের এই ধান ক্ষেতে নানা ধরনের রোগবালাইসহ হানা দিয়েছে পোকা-মাকড়। পাতা মোড়ানো রোগে সবুজ ক্ষেত এখন হলদে ও সাদা বিবর্ণ হয়ে গেছে। 

একইসঙ্গে মাজরা পোকা, নলী মাছির উপদ্রবও বেড়েছে অনেকটাই।ফলে ফসলহানীর আশঙ্কায় ভুগছেন তারা। বোদা উপজেলার ময়দানদীঘি এলাকার কৃষক আশরাফুল ইসলাম  বলেন, আমন ধানের আবাদ করা হয়েছে। এখন দেখা দিয়েছে রোগবালাইসহ পোকা-মাকড়ের উপদ্রব। ফলে আশানুরূপ ফসল পাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। 

পঞ্চগড় সদর ইউনিয়নের মো.আইবুল হক  জানান,আমার ক্ষেতে পাতা মোড়ানো পোকা ধরেছে ঔষধ দিলাম দেখি কি হয়।জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. মিজানুর রহমান বলেন, রোপন করা আমনের জমিতে পোকা ধরেছে, এটি রোগ নয় অতি বৃষ্টির ফলে এই অবস্থা। তবে তিনি বলেন ‘ রোদ আর শুষ্ক আবহাওয়া  বিদ্যমান থাকলে এ সমস্যা থাকবে না’।

জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায় ‘ এবার আমন ধান রোপনে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে  ৩ লাখ ২৬ হাজার ৬৪৬ মেট্রিক টন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য