ঠাকুরগাঁয়ের পীরগঞ্জে বিট পুলিশিং কার্যালয়ে আলোচনা সভা

মেহেদী হাসান, ঠাকুরগাঁওঃ 
‘মুজিববষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার’ এ স্লোগান সামনে রেখে ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক, ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ ও যৌতুকমুক্ত সমাজ গড়তে বিট পুলিশিং কার্যালয়ের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। 

রবিবার সকালে পীরগঞ্জ পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের জগথা মহল্লার বিট পুলিশিং কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বক্তব্য দেন পীরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক ও বিট অফিসার রেজাউল আলম সরকার, এএসআই শরিফুল ইসলাম, 

৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ মিলন, পীরগঞ্জ প্রেসক্লাব সহ-সভাপতি মোকাদ্দেস হায়াত মিলন। বিট পুলিশিংয়ের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে পীরগঞ্জ থানার ওসি প্রদীপ কুমার রায় বলেন, ‘মুজিববষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার’ এই স্লোগান সামনে রেখে বর্তমান আইজিপি স্যার দায়িত্ব নেয়ার পর তিনি বলেছেন, 

জনগণকে পুলিশি সেবা নেয়ার জন্য আর থানায় যেতে হবে না। প্রয়োজনে সেবা দিতে পুলিশ চলে আসবে জনগণের পাশে। অপরাধ দমন এবং পুলিশি সেবা জনগণের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। 

জনগণ দ্রুত পুলিশি সেবা পাওয়ার জন্য এবং আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতেই এটি চালু করা হয়েছে। ওসি প্রদীপ আরো বলেন,আমাদের বিট পুলিশের কাজের জন্য এ বিটের (ওয়ার্ডে) মধ্যে থানার নিদিষ্ট একজন এসআই অফিসার ও এএসআই কে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। 

এ অফিসে প্রতিদিন তারা আসেবেন। এ ওয়ার্ডে থানা পুলিশের যখন যিনি দায়িত্বে থাকবেন, তাদের কাজ হচ্ছে সাধারন মানুষের সহায়তায় এলাকায় কারা মাদক ব্যবসা করে, কারা মাদক সেবন করে, কারা ইভটিজিং করে এবং চাঁদাবাজি করে তাদের তথ্য সংগ্রহ করা। 

সে তালিকা অনুযায়ী অপারেশন পরিচালনা করা। এছাড়া কেউ সরাসরি পুলিশকে কোন অভিযোগ করতে না চাইলে বিট এলাকায় একটি অভিযোগ বক্স থাকবে। কারও অভিযোগ থাকলে নাম-ঠিকানা লিখে সেই অভিযোগ বক্সে রেখে যাবেন। 

প্রতিদিন এ অভিযোগ বক্স খোলা হবে এবং অভিযোগ সমুহ নিষ্পত্তি করা হবে।  সাধারন মানুষের সহযোগিতা ছাড়া পুলিশের একার পক্ষে মাদকসহ সমাজের অন্যান্য সামাজিক ব্যাধি নির্মূল করা সম্ভব নয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য