নাটোরের বিশ্বাস কোল্ড স্টোরেজ লিঃ ও মেসার্স নজরুল ইসলাম মাল্টি পারপাস কোল্ড স্টোরেজ জবর দখলের চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

মোঃ শরিফ, নাটোর :
নাটোরের বিশ্বাস কোল্ড স্টোরেজ লিঃ মেসার্স নজরুল ইসলাম মাল্টি পারপাস কোল্ড স্টোরেজ জবর দখলের চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বিশ্বাস। আজ রবিবার দুপুর ১২ টার দিকে শহরের বড় হরিশপুর বিশ্বাস কোল্ড স্টোরেজ লিঃ-এর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার জাকির হোসেন। লিখিত বক্তব্যে বলা হয় নজরুল ইসলাম বিশ্বাস তার স্ত্রী আবেদা বিশ্বাস মেসার্স বিশ্বাস কোল্ড স্টোরেজ লিঃ মেসার্স নজরুল ইসলাম মাল্টি পারপাস কোল্ড স্টোরেজ স্থাপন করে ১৯৯৫ সাল থেকে ব্যবসা চালিয়ে আসছিলেন। পরবর্তীতে মূলধন না থাকায় তারা অগ্রণী ব্যাংক নাটোর শাখা অগ্রণী ব্যাংক সাহেব বাজার কর্পোরেট শাখা রাজশাহী থেকে ঋণ গ্রহণ করেন। এর পরে বৈদ্যুতিক ত্রæটির কারণে ব্যবসায়ে লোকসান হওয়ায় এবং নজরুল ইসলাম বিশ্বাসের অসুস্থতার কারণে ঋণগুলি খেলাপী ঋণে পরিণত হয়। অবস্থায়  উল্লেখিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দুটি সমুদয় ঋণের পরিশোধের শর্তে প্রতিষ্ঠন দুটির বন্ধকী সম্পত্তি, ওই জমির ওপর নির্মিত অবকাঠামো, স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি শেয়ার মেসার্স এস.এস. এগ্রো ট্রেড লিঃ এর মালিক আবিদা সুলতানা, স্বামী কামাল হোসেন (সিপিও, নাটোর সুগার মিলস্ ) এর সামে হস্তান্তর করে ঋণের দায় হতে অব্যাহতি প্রাপ্তির জন্য অগ্রনী ব্যাংেকের কাছে আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে অগ্রণী ব্যাংক প্রধান কার্যালয় ঢাকার অনুমতিক্রমে ওই দুটি প্রতিষ্ঠান এস.এস. এগ্রো ট্রেড লিঃ ব্যাংকের মধ্যে একটি ত্রিপক্ষীয় চুক্তি সম্পাদিত হয়। চুক্তি মোতাবেক. এস.এস. এগ্রো ট্রেড লিঃএর মালিক কামাল উদ্দিন চুক্তিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান দুটি এক বছর ধরে পরিচালনা করেন। কিন্তু এই এক বছরে তিনি ব্যাংকের ঋণের কোন টাকা পরিশোধ করেননি। বরং গত ২০১৯ সালের ২২ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠান দুটির শর্ত অস্বীকার করে প্রতিষ্ঠান দুটি ক্রয়ের বায়না স্বরূপ দেওয়া ৭৫ লাখ টাকা সুদ সহ ফেরৎ চেয়ে ব্যাংকের কাছে আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে নজরুল ইসলাম বিশ্বাস তার স্ত্রী আবেদা বিশ্বাস গত ২০২০ সালেন ডিসেম্বর ব্যাংকের মাধ্যমে এস.এস. এগ্রো ট্রেড লিঃ এর মালিক আবিদা সুলতানা, স্বামী কামাল হোসেনকে ৭৫ লাখ টাকা সুদ সহ ফেরৎ দেন। পাশাপশি বর্তমানে এস.এস. এগ্রো ট্রেড লিঃ এর মালিক আবিদা সুলতানা, স্বামী কামাল হোসেনের সাথে কোন ত্রিপক্ষিয় চুক্তি বলবৎ নেই, বর্ণিত প্রতিষ্ঠান দুটি বিক্রয় বা হস্তান্তর করতে রাজি নন এবং  সমুদয় ঋণের টাকা শর্ত অনুযায়ী পরিশোধের অঙ্গীকারাবদ্ধ মর্মে অগ্রণী ব্যাংকে একটি আবেদন করেন। ব্যাংক আবেদনটি গ্রহণও করে। এর পরেও এস.এস. এগ্রো ট্রেড লিঃ এর মালিক আবিদা সুলতানা, স্বামী কামাল হোসেন ব্যাংকের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তার সাথে যোগসাজসে বিভিন্নভাবে কোল্ড স্টেরেজ সংলগ্ন জমি ক্রয় করে প্রধান ফটক বন্ধ করে দিয়ে প্রতিষ্ঠান দুটি দখল করার চেষ্টা চালাচ্ছে। যাতে করে এস.এস. এগ্রো ট্রেড লিঃ এর মালিক আবিদা সুলতানা, স্বামী কামাল হোসেন তাদের প্রচেষ্টা সফল না করতে পারে সেজন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের কাছে জোর দাবী জানান।
ব্যাপারে এস.এস. এগ্রো ট্রেড লিঃ এর মালিক আবিদা সুলতানার স্বামী কামাল হোসেনের সাতে মোবাইল ফোনে যোগায়োগ করলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন সংবাদ সম্মেলনে তার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ আনা হয়েছে তা মোটেও সত্য নয়। প্রতিষ্ঠানের সামনের জমি এবং রাস্তাও তাদের নয়। কাজেই রাস্তা দখলের কোন প্রশ্নই আসে না। এছাড়া চুক্তি অনুযায়ী প্রতিষ্ঠান দুটি ব্যাংকের কারণ তারা ঋণের টাকা পরিশোধ করতে পারেননি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য