জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পঞ্চগড়ে পাঁচশ স্কুলগামী কিশোরীর আত্মরক্ষা ও ক্ষমতায়নে ব্যুত্থান মাশার্ল আর্ট প্রশিক্ষণ শুরু


মোঃ কামরুল ইসলাম কামু, পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ
 

মুজিববর্ষে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন উদ্যোগের অন্যতম ‘সুস্থ্য কিশোরী, নিরাপদ আগামী’ এই শ্লোগানে স্থানীয় কিশোরীদের বাল্যবিয়ের কুফল ও প্রজনন স্বাস্থ্য শিক্ষা প্রদান অব্যাহত রয়েছে। এবার কিশোরীদের আত্মরক্ষার প্রাথমিক কৌশল হিসেবে ব্যুত্থান মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে। বুধবার আটোয়ারী মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শুরু হয়েছে এই প্রশিক্ষণ। দুই দিনব্যাপী প্রশিক্ষণে উপজেলার স্কুলগামী ১০০ কিশোরী অংশ নিচ্ছেন। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন প্রশিক্ষক গ্রান্ড মাস্টার ম্যাক ইউরি বজ্রমুণি ও ক্যাপ্টেন (অব.) শাহনাজ জাহানের নেতৃত্বে এই প্রশিক্ষণ পরিচালনা করা হচ্ছে। 

প্রাথমিকভাবে প্রত্যেক উপজেলায় ১০০ জন করে জেলার পাঁচ উপজেলার ৫০০ জন কিশোরীকে আত্মরক্ষা ও ক্ষমতায়নে ব্যুত্থান মাশার্ল আর্ট প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এর আগে বোদা ও দেবীগঞ্জ উপজেলায় দুইশ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। নিজেদের মধ্যে আত্মবিশ্বাস ও মনোবল বৃদ্ধি করতেই মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক ড. সাবিনা ইয়ামিনের উদ্যোগে নারীর ক্ষমতায়নে বাল্য বিয়ে রোধে শিক্ষা সহায়ক উপকরণ হিসেবে জেলার স্কুলগামী এক হাজার ৭০০ কিশোরীকে একটি করে বাইসাইকেল প্রদান করা হয়। এদের প্রত্যেককে জেলা প্রশাসসকের বিশেষ দূত (অ্যাম্বেসেডর) হিসেবে লেখাপড়ার পাশাপাশি বাল্যবিয়ের কুফল এবং প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে প্রত্যন্ত এলাকায় উঠান বৈঠক করছেন। 

বৈশি^ক করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও  প্রজনন স্বাস্থ্য সেবা ও বাল্য বিয়ে কুফলের উপর জোর দিয়ে জুম অ্যাপের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে উঠান বৈঠক পরিচলনা করা হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন কর্নার থেকে নারী বিশেষজ্ঞ, প্রজনন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ,সরকারি কর্মকর্তা, জাতীয় সংসদের স্পিকার, মন্ত্রী, সচিব, বিভিন্ন দপ্তরের মহাপচিালক, চিকিৎসক, সাংবাদিক, শিক্ষক, এনজিও ব্যক্তিত্ব, সফল মা,পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতারা সংযুক্ত হচ্ছেন। ইউনিয়ন পর্যায় থেকে নির্বাচিত অ্যাম্বেসেডর কিশোরীরা সংযুক্ত হচ্ছেন। জেলা প্রশাসক ড. সাবিনা ইয়াসমিনের পক্ষে মুজিববর্ষ উপলক্ষে এই বিশেষ উদ্যোগকের সাথে জড়িতদের নাম দিয়েছেন ‘কন্যারত্ন’। 

জেলা প্রশাসক ড. সাবিনা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে পঞ্চগড়-১ আসনের সংসদ সদস্য মো. মজাহারুল হক প্রধান প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদর্শন কুমার রায়, উপজেলা চেয়ারম্যান মো. তৌহিদুল ইসলাম বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু তাহের মো. সামসুজ্জামান স্বাগত বক্তব্য দেন।মজাহারুল হক প্রধান বলেন ‘ঘরে ঘরে একজন করে কণ্যা রত্ন তৈরী করতে হবে। অ্যাম্বেসেডর কন্যারত্নরা এখন পঞ্চগড় জেলার ব্রান্ড হয়ে উঠেছে। বাল্য বিবাহ বন্ধ এবং প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে নিজেরা সনচেতন হচ্ছে, অন্যদেরও সচেতন করছেন। মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কন্যারত্নদের আত্মবিশ্বাস আরও বাড়িয়ে তুলবে এবং তাদেরকে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে সহায়ক হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য