বঙ্গবন্ধুর সময় থেকেই উর্দূভাষীরা সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় মর্যাদা পেয়েছে -কেন্দ্রীয় যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক নিখিল


মিজানুর রহমান মিলন  সৈয়দপুরঃ

আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেছেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন উর্দূভাষী (বিহারি) মানুষের সেবক। তাই তো  ’৭১এর স্বাধীনতার যুদ্ধের পর বাংলাদেশে আটকেপড়া উর্দূভাষীদের আশ্রয় দিয়েছিলেন তিনি। 

বঙ্গবন্ধুর সময়ই উর্দূভাষীরা সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় মর্যাদা পেয়েছেন। একজন মানুষের সামাজিক মর্যাদা হচ্ছে তাঁর বাসস্থান জাতির পিতা তাদের সম্মানের সাথে আশ্রয় দিয়ে সামাজিক মর্যাদা দিয়েছিলেন। গতকাল শুক্রবার রাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা যুবলীগ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথাগুলো বলেন। সভায় আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খানা নিখিল আরো বলেন,    

সদ্য প্রয়াত সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আখতার হোসেন বাদল ছিলেন আওয়ামী লীগের জন্য নিবেদিত প্রাণ। তিনি একজন সত্যিকারের রাজনীতিবিদ ছিলেন। সারা জীবন দেশ ও মানুষের জন্য রাজনীতি করেছেন তিনি। নিজের ও পরিবারের জন্য কোন কিছুই করেননি। আর তাই বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আখতার হোসেন বাদলের মৃত্যুতে তাঁরই সহধর্মিনী রাফিকা আকতার জাহান বেবীকে আসন্ন সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী মনোনীত করে নৌকা মার্কা দিয়েছেন।  

তিনি সৈয়দপুর পৌর নির্বাচনে  রাফিকা আকতার জাহান বেবীকে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে মেয়র পদে জয়যুক্ত করার জন্য পৌরবাসীর প্রতি উদাত্ত আহবান জানান তিনি। তিনি বলেন, আগামী ১৬ জানুয়ারীর নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী জয়ী হলে সৈয়দপুরের সার্বিক উন্নয়ন কাজ তরান্বিত হবে। সমাধান হবে সকল সমস্যার। তিনি প্রধানমন্ত্রীর মনোনীত মেয়র প্রার্থী রাফিকা আকতার জাহান বেবিকে সৈয়দপুরবাসির হাতে তুলে দেয়া হলো ঘোষনা দিয়ে প্রয়াত আখতার হোসেন বাদলের অসম্পূর্ণ কাজ সম্পুর্ন করতে সকলের কাছে নৌকা মার্কায় ভোট চান। 

শহরের শেরে বাংলা সড়কের তামান্না মোড়ের আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সৈয়দপুর উপজেলা যুব লীগের আহবায়ক দিলনেওয়াজ খান।  এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য বলেন নীলফামারী পৌরসভা মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট মমতাজুল হক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও সৈয়দপুর  উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন, ভাইস চেয়ারম্যান মোছা. সানজিদা বেগম  লাকী, নীলফামারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শাহীদ মাহমুদ ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান মিলন ও সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী রাফিকা আকতার জাহান বেবী প্রমূখ। 

মেয়র প্রার্থী তার প্রয়াত স্বামী আখতার হোসেন বাদলের জন্য সকলের দোয়া চেয়ে বলেন, আমার অবুঝ তিন সন্তান আজ এতিম। তাদের জন্য আপনারা দোয়া চেয়ে তিনি বলেন আমি যেন সন্তানদের আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলে তাদের পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে পারি। মেয়র প্রার্থী রাফিকা সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নৌকা  ভোট দেয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, 

নৌকা বিজয়ী হলে উন্নয়নমুলক কাজ গ্রহন করাসহ সৈয়দপুরে রেলওয়ের জমির ওপর বসবাসকারীদের  দীর্ঘদিনের সমস্যা সমাধান করে আতংকের অবসান করা হবে। উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মো. আসাদ ইসলামের উপস্থাপনায় সভায় আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য