নীলফামারীর ডোমার বিএডিসি খামারে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এম,পি


রতন কুমার রায়-স্টাফ রিপোর্টারঃ
 

বর্তমানে বছরে এক কোটি টনের বেশি উন্নত জাতের আলু উৎপাদন হয়। দেশে চাহিদা রয়েছে ৬০-৭০ লক্ষ টনের মতো। দেশে উৎপাদিত আলুতে পানির পরিমান বেশি হওয়ায় বিদেশে চাহিদা কম। সেজন্য বিদেশে চাহিদার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে রপ্তানি ও শিল্পে ব্যবহার যোগ্য আলুর আবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধিতে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। কৃষি মন্ত্রণালয় সেলক্ষ্যে নিরলস কাজ করছে। 

রবিবার নীলফামারীর ডোমারে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) বীজআলু উৎপাদন খামার পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন কৃষিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক এম,পি। তিনি আরো বলেন, বিএডিসির ‘মান সম্পন্ন বীজআলু উৎপাদন ও সংরক্ষণ এবং কৃষক পর্যায়ে বিতরণ জোড়দারকরণ’ প্রকল্পের আওতায় এই ডোমার খামারে ভিত্তি বীজআলু উৎপাদন করা হচ্ছে। 

পাশাপাশি নতুন জাতের উপযোগিতা যাচাইয়ের জন্য ট্রায়ার প্লট স্থাপন ও পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। মন্ত্রী এদিনে রপ্তানি ও শিল্পে ব্যবহারযোগ্য আলুর প্লট, আলু ফসলের মিউজিয়াম, ড্রাগন ও খেজুর বাগান পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে ভিত্তি বীজআলু উৎপাদন খামার হলরুমে  অতিরিক্ত সচিব ও বিএডিসি’র চেয়ারম্যান সায়েদুর ইসলামের সভাপতিত্বে রংপুর বিভাগের কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন। 

এসময় কৃষি সচিব মেসবাহুল ইসলাম, অতিরিক্ত সচিব মাহাবুবুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আসাদুল্লাহ, বারির মহাপরিচালক নাজিবুল ইসলাম,বিডব্লিউএসআরআই মহাপরিচালক ড. এছরাইল হোসেন, নীলফামারী জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান বিপিএম, পিপিএম, ডোমার বিএডিসি’র উপ পরিচালক ড. আবু তালেব, ইউএনও শাহিনা শবনম, সহকারী পুলিশ সুপার জয়ব্রত পাল, ওসি মোস্তাফিজার রহমান প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য