পঞ্চগড়ে ১৪ হাজার ৫৯৫ জন প্রতিবন্ধী


মো. কামরুল ইসলাম কামু, পঞ্চগড়ঃ
 

‘‘ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত সমাজ বিনির্মাণে, সেবা ও সুযোগ প্রান্তজনে” প্রতিপাদ্য নিয়ে সারাদেশের ন্যায় পঞ্চগড়ে জাতীয় সমাজসেবা দিবস পালিত হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে শনিবার সকালে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সেবা গ্রহীতাদের সেবা প্রদান ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জেলা প্রশাসন ও পঞ্চগড় সমাজসেবা কার্যালয় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। 

সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক অনিরুদ্ধ কুমার রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক ড. সাবিনা ইয়াসমিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আজাদ জাহান। অনুষ্ঠানে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আরিফ হোসেন, মেডিকেল অফিসার তোফায়েল আহমদ,  মুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দীন প্রধান, জেলা পরিষদের সদস্য ও পরস্পর এনজিওর নির্বাহী পরিচালক আকতারুন নাহার সাকী, দেশ উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক জহিরুল ইসলম ও জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক শহীদুল ইসলাম শহীদ বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করে মুকুল আকতার।

সমাজসেবা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. মাসুম আলী স্বাগত বক্তব্যে বলেন, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্ঠনী কর্মসূচির আওতায় ৩৪ হাজার ৩৩২ জনকে বয়স্ক ভাতা হিসেবে ২০ কোটি ৫৯ লাখ ৯২ হাজার টাকা,২০ হাজার ৩০ জনকে ১২ কেটি এক লাখ ৮০ হাজার টাকা, ১২ হাজার ৪২২ জনকে ১১ কোটি ১৭ লাখ ৯৮ হাজার টাকা, পল্লী সমাজসেবা ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রমে ৩৪ হাজার ১৮৮ জনকে তিন কোটি ৫৩ লাখ ৩৪০ টাকা, পল্লী মাত্রিকেন্দ্রের আওতায় ৮০ জনকে আট লাখ টাকা আশ্রয়ন প্রকল্পে ১৪৮ জনকে নয় লাখ ৩০ হাজার টাকা ঋণ প্রদান করা হয়েছে। 

ক্যান্সার কিডনী, লিভার সিরোসিস, স্ট্রোকে প্যারালাইজড ও জন্মগত হৃদরোগীদের ৪২৭ জনকে দুই কোটি ১৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা, ক্ষুদ্র জাতিসত্তা, নৃগোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ভুক্ত দু:স্থ, অসহায় ও দারিদ্রসীমার নীচে বসবাসকারী ৫৬৪ জনের মাঝে ২৮ লাখ ২০ হাজার টাকা, চা শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য দুই হাজার ৩৮৫ জনের মাঝে এক কোটি ১৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা, নিউরো ডেভেলাপমেন্ট প্রতিবন্ধী ৩০ জন ব্যক্তির মধ্যে এক লাখ ৫০ হাজার টাকা, আধুনিক সদর হাসপাতালে ২২ হাজার ২৮৩ জনতে সাত লাখ পাঁচ হাজার ৫৬৪ টাকা, ১৪ হাজার ১৯৫ জন প্রতিবন্ধীকে ‘সুবর্ণ নাগরিক কার্ড প্রদান, চারটি স্তরে এক হাজার ১৮৭জনকে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান, নিবন্ধিত বেসরকারি এতিমখানায় ৭৯৭ জনকে প্রতিমাসে দুই হাজার টাকা করে প্রদান করা হয়েছে। 

বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠির ১৩৫ জনকে ভাতা এবং ১৪১জনকে শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া হিজড়া জনগোষ্ঠিীর জীবমান উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় তিনজনকে ভাতা এবং ছয়জনকে শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান কর হয়েছে। এছাড়া ১০০ শয্যার পঞ্চগড় সরকারি শিশু পরিবারের ৬২ জন এতিম শিশু প্রতিপালিত হচ্ছে। অনুষ্ঠান শেষে অনগ্রসর ও প্রতিবন্ধী ১০ শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তি এবং দুইজন স্টোকে প্যারালাইজড রোগীকে চেক প্রদান করেন অতিথিরা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য