ডিমলায় পজেটিভ বাংলাদেশ’র উদ্যোগে এতিম ও অসহায়দের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ


জাহাঙ্গীর রেজা, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

৪ জানুয়ারী সোমবার সকালে উত্তর বঙ্গের হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত তিস্তা নদীর অববাহিকায় উত্তরাঞ্চলের সীমান্তবর্তী জেলা নীলফামারীর ডিমলা আল-জামিয়াতুল ইসলামিয়া বাইতুল উলুম মাদরাসা ও এতিমখানা চত্ত্বরে কনকনে শীতে বিপর্যস্ত শীতার্ত হতদরিদ্র সহায় সম্বলহীন দুস্ত ১’শত এতিম শিক্ষার্থীদের মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। 

দুখী মানুষের মুখে হাসি ফুটাতেই “পজেটিভ বাংলাদেশ” এর পক্ষে এ শীত বন্ত্র প্রদান করা হয়েছে বলে স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠনটিন সদস্যরা জানিয়েছেন। তারা জানান, উত্তরাঞ্চলের কুড়িগ্রাম ও নীলফামারী জেলায় হতদরিদ্র শীতার্ত মানুষের হাতে শীত নিবারণের জন্য শীতবস্ত্র বিতরণ করা হচ্ছে। তারই ধারবাহিকতায় জেলার ডিমলা উপজেলায় এসব শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। পজেটিভ বাংলদেশের সদস্য মোঃ আতিক হাসান হিমেলের সভাপতিত্বে ও ডোমার রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক আনিছুর রহমান মানিক এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়শ্রী রানী রায়। 

পজেটিভ বাংলাদেশের সংগঠনটির কার্যক্রমের প্রশংসা করে উত্তর উত্তর সাফল্য কামনা করে প্রধান অতিথি বলেন, ফেসবুকের মাধ্যমে একটি গ্রুপের কার্যক্রমে একদিন পজেটিভ বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। তিনি সংগঠনটির পজেটিভ ও  ভালো উদ্যোগগুলি আরো বেশি প্রসারিত হোক এগিয়ে যাক পজেটিভ বাংলাদেশ বলেও তিনি কামনা করেন। 

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সেকেন্দার আলী বলেন “পজেটিভ বাংলাদেশ” সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির কাজ আমারও ভালো লেগেছে। তারা ছোট ছোট এসব কাজের মধ্যে দিয়েই মানুষের মনের মধ্যে জায়গা করে নিচ্ছে বলে আমি বিশ্বাস করি। তারা  সারাদেশের মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারছে এটা শুনে আমার খুবই ভালো লাগলো। এখন ভালো কাজ মানুষ করতে চায়, কিন্তু এরকম কোন ভালো ফোরাম কিংবা সংগঠন না পাওয়ায় তারা মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারে না। 

এ সময় উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে পজেটিভি বাংলাদেশের কার্যক্রম নিয়ে কিছু আলোকপাত করতে গিয়ে অনুষ্ঠানের সভাপতি বলেন, অসহায় এসব মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে নিরাশ্রয়কে আশ্রয় দিয়ে স্বপ্নের বাড়ী তৈরী করে দিচ্ছে আমরা। আমরা পজেটিভ বাংলাদেশের সদস্য হতে পেরেও নিজেকে ধন্য মনে করছি। আমরা যেসব শিক্ষার্থী অর্থাভাবে লেখাপড়া করতে পারে না কিংবা বই কিনে লেখাপড়া করা তাদের খুবই কষ্টকর সেসব শিক্ষার্থীদেরকে পজেটিভ বাংলাদেশ এর পক্ষে সহযোগীতা করছি। 

স্কুলের ছোট ছোট কোমলমতি ছেলে-মেয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিচ্ছি খাতা-কলম। একই ভাবে সামাজিক ও স্বেছাসেবী সংগঠন পজেটিভ বাংলাদেশের কার্যক্রম তুলে ধরে শাহনুর রহমান শাকিল বলেন, বিগত তিন বছর ধরে এই পজেটিভ বাংলাদেশ অলাভজনক সংগঠনটি এভাবে শীতবস্ত্র বিতরণ করছে শীতার্ত মানুষের মাঝে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য