পৌরসভা নির্বাচনের প্রার্থীদের মাঝে প্রতিক বরাদ্দেরর ব্যাজ বেচাকেনার হিড়িক


মিজানুর রহমান মিলন, সৈয়দপুরঃ

আগামি ১৬ জানুয়ারী সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে প্রতিক বরাদ্দের পর ভ্রাম্যমান দোকানে প্রতিকের ব্যাজ বেচাকেনার হিড়িক পড়েছে। আজ বুধবার প্রার্থীদের মাঝে প্রতিক বরাদ্দ দিয়েছে উপজেলা নির্বাচন অফিস। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র,কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর পদে ১১৪ জন  প্রার্থীদের মাঝে দেয়া হয় প্রতিক। 

এদের মধ্যে মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৮৮ জন এবং সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর পদে ২১ জন প্রার্থী রয়েছেন। উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে প্রার্থীদের মাঝে প্রতিক বরাদ্দ দেন জেলা নির্বাচন অফিসার ও পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ফজলুল করিম। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও পৌরসভা নির্বাচনের সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা মো.রবিউল আলম। সুত্র জানায়, যেসব প্রার্থীর পছন্দের প্রতিকের বিপরীতে অপর প্রার্থী একই প্রতিক না চাওয়া তাদের মাঝে নির্ধারিত প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হয় ৷ কিন্তু একই প্রতিক একাধিক প্রার্থী দাবি করায় তাদের মাঝে লটারি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে প্রতিক বরাদ্দের বিষয়টি নিস্পত্তি করা হয়। 

এদিকে প্রতিক বরাদ্দ উপলক্ষে সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে বিভিন্ন প্রতিকের ব্যাজ নিয়ে মওসুমি ব্যবসায়ীরা দোকান খুলে বসে। প্রার্থীর পছন্দের প্রতিক বরাদ্দ পাওয়া মাত্রই তাদের কর্মী সমর্থকেরা ব্যাজ কেনায় ব্যস্ত হয়ে পড়েন। লেমিনেশন করা ওইসব ব্যাজ প্রতি পিস হিসেবে ১০ টাকা করে খরিদ করছেন তারা। ভ্রাম্যমাণ ব্যাজ বিক্রির দোকানে সবচেয়ে বেশী প্রতিকের ব্যাজ বিক্রি হয়েছে সাধারন কাউন্সিল প্রার্থীদের। ব্যাজ

কিনতে আসা ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী নুরুল আমিন প্রামানিকের সমর্থক বাবুল জানান,আমার সমর্থিত প্রার্থীর মার্কা টেবিল ল্যাম্প। তাই আজ ৫০টি ব্যাজ কিনলাম। এছাড়া প্রতিটি ওয়ার্ডের প্রার্থীদের সমর্থকেরা  ব্যাজ কিনে বুকে ধারণ করে প্রচারণা শুরু করেছে। 

ভ্রাম্যমান ব্যাজ বিক্রেতা সাইদুল জানান, আজ সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনের প্রতিক বরাদ্দ দেয়া হবে জেনে এখানে এসেছেন। সকাল থেকেই বেচাকেনা করছেন প্রতিকের ব্যাজ। লাভও ভাল হয়েছে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য