বিরামপুর উপজেলার দিওড় ইউনিয়ন হবে মডেল ইউনিয়ন; সমাজসেবক আ:মালেক মন্ডল


চৌধুরী নুপুর নাহার তাজ দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ 

বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের মাধ্যমে অবহেলিত দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার দিওড় ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলতে ও জনগোষ্ঠীর জীবন মানউন্নয়নের লক্ষে কাজ করে যাচ্ছেন তরুণ সমাজসেবক, এমপি শিবলী সাদিকের বিশ্বস্ত ভ্যানগার্ড আব্দুল মালেক মন্ডল। ইতিমধ্যে তার ব্যাক্তিগত উদ্যোগে ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের জনদুর্ভোগ নিরসনে ইউনিয়নবাসীকে সঙ্গে নিয়ে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

এছাড়াও তরুণদের সঙ্গে নিয়ে মাদক নির্মুলে ইউনিয়নের বিভিন্ন মাঠে খেলাধুলার ব্যবস্থা, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনগণের মাঝে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ এবং পরিবেশ রক্ষায় নিয়মিত ভাবে রোপণ করে যাচ্ছেন বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ। এতে করে একজন তরুণ প্রজন্মের নেতা হিসেবে মালেক মন্ডলের কর্মকান্ড দেখে ইউপিবাসী তাকে যেন ঘরের সন্তান বলে পরিবারে জায়গা দিয়েছে।

দিওড় ইউপি'র মাগুড়াপাড়া গ্রামের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বাসিন্দা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠিত হয়ে একের পর এক চেয়ারম্যান এলে গেলেও তেমন কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি ইউনিয়নবাসীর জীবনে। আমাদের ইউনিয়নে বর্ষা মৌসুমে রাস্তায় জমে থাকে হাঁটু সমান পানি ও কাঁদা। রাস্তা ঘাট দিয়ে চলাচলের জন্য পোহাতে হয় চরম দূর্ভোগ। কেন এতো জনদূর্ভোগে চলাচল করতে হয় বলে তিনি চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

বামনাহার গ্রামের বাসিন্দা সজিব হোসেন বলেন, এবার ইউনিয়নের উন্নয়নে তরুণ সমাজসেবক, তরুণ মুখ মালেক মন্ডলকে দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড চালাতে। তিনি জনপ্রতিনিধি না হয়েও জনগণের ভোগান্তির কথা ভেবে নিজ উদ্যোগে এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়ন, ড্রেন নির্মাণ, মসজিদ, মাদ্রাসার উন্নয়ন, 

অসচ্ছল পরিবার ও অসুস্থ ব্যাক্তিদের আর্থিক সহায়তা প্রদানসহ করোনাভাইরাসের দুঃসময় থেকে শুরু করে বন্যা পর্যন্ত যেভাবে ইউনিয়নবাসীর পাশে দাড়িয়েছেন তা একজন জনপ্রতিনিধির করা উচিৎ ছিল বলে তিনি আরো বলেন, এবার দিওড় ইউপি নির্বাচনে দলমত নির্বিশেষে তৃণমূল ইউনিয়নবাসীর মন ছুঁয়েছে মালেক মন্ডলের ভালোবাসা। তাই এবার দিওড় ইউপি নির্বাচনে দলমত নির্বিশেষে মালেক মন্ডলকে নির্বাচিত করবে বলে তিনি জানান।

তরুণ প্রজন্মের নেতা মালেক মন্ডল বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ইউনিয়নবাসীকে জনদূর্ভোগে ফেলে রেখেছে অতীতের চেয়ারম্যানরা, তারা ইউনিয়নবাসীর কোন মানউন্নয়ন না করে ঠিক নিজেদের উন্নয়ন করেছে। বিশেষ করে এবার করোনা ভাইরাস মহামারি ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের মাঝে ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিদের তেমনটা দেখা যায়নি। 

দেখা গেছে শুধু অসহায় দরিদ্র মানুষের আহাজারি। কিন্তু তাদের আহাজারি দেখে আমি থেমে থাকতে পারিনি। আমার পক্ষ থেকে সাধ্যানুযায়ী এলাকার অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। যা কোন স্বার্থের জন্য নয় মানবতার জন্য তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। এবং আগামীতেও তাদের পাশে আমি থাকবো বলে তিনি জানান।

নির্বাচন নিয়ে তিনি জানান, আমি কোন মনোনয়ন পাওয়ার আশায় কিছু করছিনা আমি দিনাজপুর-৬ আসনের এমপি শিবলী সাদিকের নির্দেশে প্রতিটি মুহূর্ত ইউনিয়নবাসীর সেবা করে যাচ্ছি এবং আগামীতে একই ধারায় আমার সেবা অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য