ভাংগুড়ায় প্রতিবন্ধীদের মাঝে খাবার বিতরণ করলো প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় সহ "সময়ের সংবাদ" পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ভাঙ্গুড়া (পাবনা):
করোনাভাইরাসের সংকটকালীন সময়ে প্রতিবন্ধীদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন খানমরিচ অটিস্টিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মামুনুর রশিদ। সহযোগীতায় ছিলেন, জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল "সময়ের সংবাদ" পরিবার।

ভাঙ্গুড়ার খানমরিচ ইউনিয়ন এর বিভিন্ন এলাকায় প্রতিবন্ধী ছাত্র ছাত্রীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবার বিতরণ এবং প্রতিবন্ধী পরিবারের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন খানমরিচ অটিস্টিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মামুনুর রশিদ, দৈনিক কলম সৈনিক এর স্টাফ রিপোর্টার রাজিবুল করিম এবং "সময়ের সংবাদ" এর পরিবার।

তারা প্রতিবন্ধী পরিবার কে  এই সময়ে প্রতিবন্ধীদের প্রতি বাড়তি পরিচর্যার জন্য আহবান জানান।

বিতরনকালের সময় মামুনুর রশিদ বলেন, প্রতিবন্ধীরা কোন সমাজের বোঝা নয়, সমাজ বিনির্মানে তাদেরকে উন্নয়নের মুল শ্রোতধারায় নিয়ে আসতে সকলের সহযোগীতা প্রয়োজন।

এসময় তিনি আরও বলেন, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী ধনী গরীব সবাই ঘরবন্দী, এ সময় সরকারের পাশাপাশি সমাজের যারা বিত্তবানরা আছেন তারা সবাই যেন প্রতিবন্ধীদের জন্য সহযোগিতার হাত বাড়ান। আমি যতটুকু পারি অসহায়দের জন্য সাহায্যের হাত বাড়াই এবং আগামীতে চেস্টা করব ইনশাআল্লাহ।

এ সময় খানমরিচ প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের ছাত্র আলিফ এর মা বলেন, এই বিদ্যালয়টি প্রতিষ্টিত হবার পর আমরা প্রতিবন্ধীদের আলাদা ভাবে বাচ্চাদের শিক্ষাদান এর সুযোগ পাচ্ছি। প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে সুন্দর পরিচর্যার মাধ্যমে শিক্ষাদান করা হয় বলে প্রতিবন্ধীরা বিদ্যালয়ে যেতে অনেক আগ্রহী হচ্ছে বলে তিনি জানান।

এলাকাবাসীর মাধ্যমে জানা যায়, মামুনুর রশিদ অসহায় প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করছেন অনেক দিন আগে থেকেই। এলাকাবাসী ও প্রতিবন্ধীদের পরিবার তার এ কৃতকর্মের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

এ সময়, জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল "সময়ের সংবাদ" পরিবার এর পক্ষ থেকে সবাইকে সাধ্যানুযায়ী সাহায্যর হাত প্রসারিত করতে অনুরোধ করেন "সময়ের সংবাদ" এর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি সিরাজুল ইসলাম রায়হান।

দৈনিক কলম সৈনিক এর স্টাফ রিপোর্টার এবং জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল "সময়ের সংবাদ" এর নির্বাহী সম্পাদক রাজিবুল করিম রোমিও বলেন, প্রতিবন্ধীদের পাশে আমরা সব সময় আছি এবং আগামীতেও থাকব ইনশাআল্লাহ।মামুন ভাইয়ের মতো সমাজের সকলেরই আন্তরিক ভাবে প্রতিবন্ধীদের জন্য সহযোগীতা করা উচিৎ ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য