নাটোরের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র কামরুল ইসলাম জাহিদের হত্যাকারী মিনহাজ হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

মোঃ শরিফ,নাটোর
নাটোরের রাজশাহী সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী কামরুল ইসলাম জাহিদের হত্যাকারী মিনহাজ হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার দুপুর ১২ টার দিকে নাটোরের পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তথ্য জানান পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা। গতরাতে মিনহাজে হাসেনের বাড়ী থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মিনহাজ হোসেন সদর উপজেলার সুলতানপুর গ্রামের নূরুল হকের ছেলে এবং নাটোর নবাব সিরাজ-উদ-দৌলা সরকারী কলেজের অনার্সের ছাত্র।
প্রেস ব্রিফিংকালে পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান হয়, সদর উপজেলার হালসা বাজারে একদিন ভ্যান রিক্সায় চড়া নিয়ে মিনহাজ হোসেনকে থাপ্পর মারে কামরুল ইসলাম জাহিদ। এরপর থেকেই মনের ভিতর পুঞ্জীভূত ক্ষোভ বাড়তে থাকে মিনহাজের। গত জানুয়ারী সন্ধ্যায় কামরুল ইসলাম জাহিদের প্রেমিকা সোনিয়ার সাথে দেখা করানোর কথা বলে নবীন কৃষ্ণপুর গ্রামে কামরুলকে ডেকে ফাঁকা মাঠে নিয়ে যায় মিনহাজ। সেখানে মিনহাজ তার পকেট থাকা ধারালো দা বের করে কামরুলের ঘাড়ে কোপ মারে। এতে কামরুল দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে মাটিতে পড়ে যায়। এরপর উপযুপরি কুপিয়ে কামরুল ইসলামকে হত্যা করে পালিয়ে যায় মিনহাজ হোসেন। এঘটনায় নিহতের বোন রেহেনা আক্তার বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামী করে নাটোর সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। মামলা দায়েরের পর পুলিশ ভিন্ন সোর্সের সুত্র ধরে মিনহাজকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের পর মিনহাজ হোসেন হত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করে। তার দেওয়া স্বীকারোক্তিতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ধারালো দা উদ্ধার করেছে পুলিশ।
প্রেস ব্রিফিংয়ে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আকরামুল হোসেন, সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান মিয়া, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈকত হাসান, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) ফরিদুল

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য