বাগাতিপাড়ায় পরিক্ষার্থীদের দিয়ে মিনা দিবস পালন করায় অভিভাবকদের ক্ষোভ


নিজস্ব প্রতিবেদক, বাগাতিপাড়া
নাটোরের বাগাতিপাড়ায় মডেল টেষ্ট পরিক্ষায় অংশ নিতে আসা পরিক্ষার্থীদের দিয়ে মিনা দিবসের র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে উপজেলার অন্য কেন্দ্রর সাথে সময়মত পরিক্ষা শুরু না হওয়া এবং পরিক্ষার পূর্বে আধা ঘন্টা র‌্যালিতে সময় দেয়াই মানষিক প্রস্তুতি নিতে না পারায় হতাশা প্রকাশ করেন পরিক্ষার্থীর অভিভাবকরা। মঙ্গলবার সকালে পেড়াবাড়িয়া মডেল সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরিক্ষার্থীদের ওই র‌্যালিতে অংগ্রহন করানো হয়।

জানা যায়, উপজেলায় একযোগে ৫ম শ্রনীর মডেল টেষ্ট পরিক্ষা শুরু হয় গত রোববার থেকে। এতে পৌরসভা এলাকার প্রায় ১০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৬১ জন শিক্ষার্থী পেড়াবাড়িয়া মডেল সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরিক্ষায় অংশ নিচ্ছে। মঙ্গলবার সকালে বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচিতি বিষয়ে পরিক্ষায় অংশ নিতে সকাল ১০ টায় পেড়াবাড়িয়া মডেল সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে উপস্থিত হয় শিক্ষার্থীরা। এমন সময় প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব মতিনুল হক উপস্থিত পরিক্ষার্থীদের পরিক্ষার কক্ষ থেকে বের হয়ে উপজেলা চত্ত্বরে মিনা দিবসের র‌্যালিতে অংশ নিতে নির্দেশ দেন। সেই মোতাবেক পরিক্ষার্থীরা র‌্যালিতে অংশ নিতে উপজেলা চত্ত্বরে সাড়ে দশটা পর্যন্ত আধাঘন্টা লাইনে দাড়িয়ে অপেক্ষা করে। র‌্যালির প্রধান অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান অহিদুল ইসলাম গকুল এমন কর্মকান্ডের বিষয়টি নজরে আসলে র‌্যালি সংক্ষিপ্ত করার নির্দেশ দেন শিক্ষা কর্মকর্তাকে। কিন্তু সংক্ষিপ্ত র‌্যালি শেষে নাস্তা খেয়ে পরিক্ষায় অংশ নিতে শিক্ষার্থীদের প্রায় দশ মিনিট দেরি হয়।

পরিক্ষায় অংশ নিতে আসা শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সকাল দশটায় বাচ্চাদের নিয়ে পরিক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হন অভিভাবকরা। নির্ধারিত সময়ে উপজেলার অন্যকেন্দ্রে পরিক্ষা শরু হলেও পেড়াবাড়িয়া কেন্দ্রে পরিক্ষা দেরিতে শুরু হয়েছে। এছাড়া কোমলমতি শিশুরা পরিক্ষায় অংশ নিতে মানষিক প্রস্তুতি নিয়ে আসে। কিন্তু তাদের আধাঘন্টা ধরে র‌্যালিতে অংশনিয়ে অবার পরিক্ষায় অংশ নেয়া এটা তাদের প্রতি একটি মানষিক চাপ সৃষ্টি করা ছাড়া কিছুইনা। পেড়াবাড়িয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব মতিনুল হক বলেন উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার নির্দেশে বাচ্চাদের র‌্যালিতে অংশ নিতে বলেছি।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার (ভারপ্রাপ্ত) মজনু মিয়া বলেন, প্রাথমিক সমাপনি পরিক্ষার পূর্বে প্রস্তুতি মূলক মডেল টেস্ট পরিক্ষার আয়োজন করা হয়। পেড়াবাড়িয়া কাছের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তাই শিক্ষার্থীদের র‌্যালিতে অংশ গ্রহন করানো হয়েছে। তবে নির্ধারিত সময়ে পরিক্ষায় অংশ নিয়েছে পরিক্ষার্থীরা।

এছাড়া তিনি বলেন এটাতো ফাইনাল পরিক্ষা না, শিক্ষার্থীদের এতে কোন সমস্যা হবেনা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য