রাজারহাট থেকে নিজ বাড়িতে ফিরতে চায় নাম ঠিকানা হীন এক মহিলা


রাশেদ স্টাফ রিপোর্টার কুড়িগ্রামঃ
 

কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলায় চাকিরপশার ইউনিয়নে খোঁজ পাওয়া যায় নাম পরিচয়  হীন (৪০) বছর বয়সী এক নারীর। রাজারহাটে চাকিরপশার ইউপির ফুলখার চাকলা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী  শিক্ষিকা ফাতেমা বেগম,  ঘরিয়াল ডাংঙ্গার  বুড়িরহাট নামক প্রত্যন্ত নদী  এলাকা থেকে অসুস্থ অবস্থায় নিয়ে আসেন এই মহিলাকে। অনেক চিকিৎসা ও সেবা যত্ন  করার পর  শারীরিক ভাবে সুস্থ হয়ে উঠলেও ফিরে আসেনি তার পুরোনো কোন স্মৃতি।

এভাবেই কেটে যায় তার কয়েকটি বছর। এরি মধ্যে হঠাৎ  করে স্কুল শিক্ষিকা ফাতেমা বেগমের পৃথিবী থেকে  ঘটে  শেষ পরিণয় । তখন ঐ মহীলার সকল দায়ভার নেয় তার বড়ছেলে সুইট রানা। সুইট রানার সাথে কথা বলে  জানাজায়  এই মহিলা  তার পুরোনো কোন স্মৃতি মনে করতে পারেনা, এই নাম পরিচয় হীন মহিলা প্রায় ৮/৯ বছর যাবত আমাদের বাড়িতে আছে।  তিনি বলেন আমার মা এর মৃত্যুর  পরে  আমি তাকে নিজের মায়ের মত সেবা যত্ন করছি । তবে এখন আমি চাই উনি তার পরিবারের কাছে ফিরে যাক। কারন প্রত্যেক মানুষেরই  একটি পরিবার আছে, আর তাকেও তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিতে পারলে আমরাও দায় মুক্ত হতে পারবো। তবে ওনার পরিবার যদি ওনাকে অসিকার করে বা তার পরিবারের কাউকে খুঁজে পাওয়া না যায়  তাহলে  আমি ওনাকে আমার কাছেই রাখবো। মরহুম শিক্ষিকার মেজ মের সাথে কথা বললে তিনিও একই কথা বলেন।

এ বিষয়ে  তারই প্রতিবেশি উক্ত এলাকার বিশিষ্ট  সমাজ সেবক রাসেল আহমেদ এর সাথে কথা বললে তিনি  বিষয়টি নিশ্চিত  করেন, উনি বলেন মরহুম  স্কুল শিক্ষিকা  ফাতেমা বেগম ও তার ছেলে সুইট রানা নাম পরিচয় বলতে না পাড়া এই মহিলাকে বসবাসের স্থান দিয়ে রাজারহাটে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য