জলঢাকায় জমি-জমার জেরে শত বছরের বাবাকে থাপ্পড় মারলেন সন্তান


আব্দুল মালেক, বিশেষ প্রতিনিধিঃ 

জমি-জমার জের ধরে শত বছর বয়সী বাবাকে থাপ্পড় মেরে আহত করলেন লম্পট ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে নীলফামারীর জলঢাকার গোলনা ইউনিয়নের ০২নং ওয়ার্ড ছলেমানের চৌপুথি বাজার এলাকার মমতাজ উদ্দিনের দ্বিতীয় ছেলে ইব্রাহীম আলী (৫০)। জৈনিক মমতাজ আলীর ৭ ছেলে ও ০৪ মেয়ে সন্তানের মধ্যে দ্বিতীয় সন্তান ইব্রাহীম। 

মমতাজ আলী দীর্ঘদিন যাবত ছলেমানের চৌপুতি বাজার জামে মসজিনের মোয়াজ্জিনের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। প্রতিদিনের ন্যায় তিনি সোমবার আসরের নামাজের জন্য মসজিদে আজান দেওয়ার জন্য বাসা থেকে বের হলে ছেলে ইব্রাহীম তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। এসময় ছেলেকে ধমক দিয়ে মারতে গেলে, উল্টো ছেলের হাতে মার খান বাবা। সরেজমিনে গেলে বাজারের দোকান ব্যবসায়ীরা জানান, বাজারের ভিতরে লোক সমাগমের মধ্যে ছেলে ইব্রাহীম তার বাবাকে পরপর চারটি থাপ্পড় মারে এবং বিভিন্নভাবে সাশিয়ে যায়। 

এসময় বাবাকে মারতে দেখে বড় ছেলে ইয়াসিন আলী এগিয়ে গেলে লম্পট ইব্রাহীম পালিয়ে যায়।তবে ইব্রাহীমের অভিযোগ জমি বিক্রি করার কথা বলে টাকা নিয়েছে বাবা। কিন্তু যে জমি দেয়ার কথা ছিলো তা না দিয়ে কালক্ষেপন করে আসছেন। তিনি বলেন, এইসব কথা বলতে গেলে বাবা আমাকে মেরেছে। আমি বাবার শরীরে হাত দেইনি, হাত ঝটকা দিয়েছি মাত্র।

কান দিয়ে রক্ত ঝরলে অন্যান্য ছেলেরা মমতাজ আলীকে জলঢাকা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করালে কর্তব্যরত ডাক্তার মঙ্গলবার বেলা ১১টায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন।আইনি ব্যবস্থা গ্রহনের বিষয়ে জানতে চাইলে বড় ছেলে ইয়াসিন আলী জানায়, বাবাকে আগে সুস্থ্য করতে হবে, তারপর তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিবো।

এব্যাপাওে ইউপি সদস্য জিল্লুর রহমান বলেন, তাদের বাড়িতে দীর্ঘদিন যাবত জমিজমা নিয়ে দন্ড চলছে, এনিয়ে মনে হয় ঘটনাটি ঘটছে, তবে যাই হউক বাবাকে মারাটা চরম অপরাধ করেছে ছেলে ।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য