সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচন দলে যোগ দিয়েই ধানেরশীষ পেলেন শওকত চৌধুরী


মিজানুর রহমান মিলন, সৈয়দপুরঃ

জাতীয়পার্টি ছেড়ে বিএনপিতে যোগ দিয়েই সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য ধানেরশীষ পেলেন সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শওকত চৌধুরী।   আজ শনিবার সন্ধ্যায় বিএনপি থেকে তাঁর মনোনয়নের বিষয়টি চুড়ান্ত করা হয়। সদ্য দলে যোগদান করা বিএনপি নেতা শওকত চৌধুরীর ঘনিষ্ঠ সুত্র মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এ পৌরসভা নির্বাচন গত ১৬ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ভোটের দুই দিন আগে ১৪ জানুয়ারী মেয়র পদের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সৈয়দপুর পৌরসভা মেয়র আমজাদ হোসেন সরকার মৃত্যু বরণ করেন। 

ফলে নির্বাচন কমিশন তাৎক্ষণিক এক প্রজ্ঞাপনে সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচন স্থগিত করেন। পরে গত ২৫ জানুয়ারী সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনের জন্য পুনঃতফসিল ঘোষনা করেন। নির্বাচনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয় ২৮ ফেব্রুয়ারী। এরপরেই বিএনপিতে প্রার্থী শুন্যতা পুরণে দলের মনোনয়ন পেতে সাবেক সংসদ সদস্য শওকত চৌধুরীসহ অনেকেই দৌড়ঝাপ শুরু করেন। পরবর্তীতে কেন্দ্রে লবিং গ্রুপিংয়ে এগিয়ে যান শওকত চৌধুরী। তিনি প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে দলের গ্রীন সিগন্যাল পেয়ে গত ২৮ জানুয়ারী দুপুরে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিএনপিতে যোগদান করেন।

ওই অনুষ্ঠানে স্থানীয় বিএনপির প্রথম সারির নেতৃবৃন্দসহ কয়েকজন পৌর কাউন্সিলর, ছাত্রদল,যুবদল ছাড়াও অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। দলে যোগদানের পরেই তিনি পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য দলের মনোনয়নে ধানেরশীষ পেলেন। প্রসজ্ঞতঃ আগামি ২৮ ফেব্রুয়ারী সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন সাবেক মেয়র ও সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রয়াত আখতার হোসেন বাদলের সহধর্মিণী রাফিকা আকতার জাহান বেবী, জাতীয় পার্টির (এরশাদ) লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী শিল্পপতি সিদ্দিকুল আলম,  বাংলাদেশ ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা প্রতীকের নুরুল হুদা ও মোবাইল ফোন প্রতিক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী রবিউল আউয়াল রবি। ৫ম ধাপের এ নির্বাচনে সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র ও ১২ নং ওয়ার্ডের সাধারন কাউন্সিলর পদের জন্য মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ তারিখ আগামি ২ ফেব্রুয়ারী, যাচাই ও বাছাই ৪ ফেব্রুয়ারী,

মনোনয়পত্র প্রত্যাহার শেষ দিন ১১ ফেব্রুয়ারি এবং প্রতিক দেয়া হবে ১২ ফেব্রুয়ারী এবং ওইদিন থেকে প্রচারণা শুরু হয়ে চলবে আগামি ২৬ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত। ২৮ ফেব্রুয়ারী সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য