পঞ্চগড় পৌরসভা নির্বাচন উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ; কেন্দ্রের বাইরে উত্তেজনা


মো. কামরুল ইসলাম কামু, পঞ্চগড়ঃ

পঞ্চগড়ে উৎসবমুখর পরিবেশে সোমবার সকাল ৮টা থেকে পঞ্চগড় পৌরসভার ১৫ টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। শীতকে উপেক্ষা করে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের মাধ্যমে (ইভিএম) ভোট দিতে সকাল থেকেই ভোটারদের ব্যাপক উপস্তিতি দেখা গেছে। বিভিন্ন কেন্দ্রে পুরুষ ভোটারদের পাশাপাশি মহিলা ভোটাররাও দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে ছিলেন ভোট দিতে।

এদিকে  সকাল ১১ টার পরে জেলা কালেক্টরেট আদর্শ শিক্ষা নিকেতনের সামনে কিছু উচ্ছ’ঙ্খল যুব জেলা নির্র্বাচন অফিসার মোঃ আলমগীরের গাড়ি ভাংচুর করে। এঘটনায় রবিউল নামে একজন পৃুলিশ কনস্টেবল আহত হয়। পৌরসভার রাজনগড় (নতুনবস্তি) ভোটকেন্দ্রে কাউন্সিলর সর্মথকদের মাঝে উত্তেজনা সহ মারপিটের ঘটনা ঘটে। এছাড়া নির্বাচন নিয়ে তেমন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। তবে কিছু যুবক শ্রেনী ভোট কেন্দ্রের বাইরে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা করে।

নির্বাচনে আওয়ামীলীগ, বিএনপি ও জাগপাসহ তিনজন মেয়র প্রার্থী এবং ৫৩ জন কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের ১৫ টি কেন্দ্রের ৯৭টি কক্ষে ভোট প্রদান করছেন। মোট ভোটার সংখ্যা ৩৫ হাজার ১১ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ১৭ হাজার ১৫৩ এবং নারী ভোটার ১৭ হাজার ৮৫৮ জন। 

সকাল ৯টার দিকে ২ নং ওয়ার্ডের গুরুত্বর্পু ভোটকেন্দ্র পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে দুই প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ, বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যরা পরিস্থিনি শান্ত করেন। এছাড়া করতোয়া কালেক্টরেট, নুরুন আলা নুর, পঞ্চগড় উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রসহ আরও কয়েকটি কেন্দ্রে একই অবস্থা বলে জানা গেছে।

এছাড়া ভোট গ্রহণ নির্বিঘেœ সম্পন্ন করতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যাপক তৎপরতা দেখা গেছে। প্রতি কেন্দ্রে ৫ জন পুলিশ ও ১৫ জন আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া দুই প্লাটুন বিজিবিসহ পুলিশের ৩টি, র‌্যাবের ৩টি মোবাইল টিম দায়িত্¦ পালন করছেন। পাশপাশি ৯ ওয়ার্ডে ৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন।

পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাডিং অফিসার, মো. রুবেল হোসেন বলেন, সকাল ৮ টা থেকে কেন্দ্রে নারী ও পুরুষ ভোটাররা দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে শান্তিপুর্নভাবে ভোট প্রদান করছেন। এখানে কোন সমস্যা নেই। আশা করি বিকাল ৪ টা পর্যন্ত শান্তপুর্ন পরিবেশে ভোট গ্রহন করা হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য