পঞ্চগড়ে বখাটের উত্যক্ত সইতে না পেরে কিশোরীর আত্মহত্যার চেষ্টা আটক দুইজন


মো. কামরুল ইসলাম কামু, পঞ্চগড়ঃ

পঞ্চগড়ে উত্যক্ত করা সহ্য করতে না পেরে নবম শ্রেণীর এক কিশোরী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। বর্তমানে ওই কিশোরী পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। রবিবার (১ নভেম্বর) রাতে পঞ্চগড় পৌরসভার কামাতপাড়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় পঞ্চগড় থানা পুলিশ দুই তরুনকে গ্রেফতার করেছে। 

গ্রেফতারকৃতরা হল-জেলা শহরের কামাতপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে নজরুল ইসলাম জনি (২৭) ও একই গ্রামের হবিবর রহমানের ছেলে আহসান হাবীব (১৮)। পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় হান্নান শেখ স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেনী পড়–য়া ওই কিশোরীকে নজরুল ইসলাম জনির সহযোগিতায় আহসান হাবীব দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করে আসছিল।  

রাস্তায় বের হলেই তাকে উত্যাক্ত করে এবং প্রেমের প্রস্তাব দেয়। গত তিন মাস পূর্বে কিশোরীর বাড়িতে গিয়ে আহসান হাবিব গালি গালাজ করে। এ নিয়ে কিশোরীর প্রবাসী ভাই তার বন্ধুকে দিয়ে তাদেরকে সাবধান করেছিল। এরপরও হাবিব তাকে উত্যাক্ত করে আসছিল। গত রবিবার রাতেও জনি ও হাবিব ওই কিশোরীর বাসায় গিয়ে তাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেয়। 

এ ঘটনার পর রাতে ওই কিশোরী তার নিজ ঘরে ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এ সময় তার মায়ের চিৎকারে প্রতিবেশীরা বাসায় এসে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর মা বাদি হয়ে পঞ্চগড় থানায় একটি মামলা দায়ের করে। মামলার পর পরই পঞ্চগড় থানা পুলিশ জনি ও হাবিবকে আটক করে। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পঞ্চগড় থানার উপ-পরিদর্শক দীন মোহাম্মদ জানান, রাতেই ওই কিশোরীর মা (নাসিমা বেগম) বাদি হয়ে পঞ্চগড় থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। আমরা রাতেই আসামীদের গ্রেফতার করেছি। সোমবার (২ নভেম্বর) আসামিদের পঞ্চগড় চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলি আদালতে-১ পাঠানো হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য