তেতুলিয়ায় সারাদেশের ছাগল ও ভেড়ার পিপিআর রোগের প্রতিশোধক ভেকসিন প্রয়োগের উদ্বোধনে


কামরুল ইসলাম কামু, পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ 

ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগল বাংলাদেশের নিজস্ব সম্পদ । এমন সমৃদ্ধ জাতের ছাগল পৃথিবীর কোথাও নেই। তাই ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগলকে ইতোমধ্যে দেশীয় ব্রান্ড হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এখন ইলিশের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি লাভের পর ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগল বাংলাদেশী ব্রান্ড হিসেবে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য কাজ করছে সরকার । 

অচিরেই আন্তর্জাতিক ভাবে এই ঘোষণা আসবে । তেতুলিয়ায় সারাদেশের ছাগল ও ভেড়ার পিপিআর রোগের প্রতিশোধক ভেকসিন প্রয়োগের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এই তথ্য জানিয়েছেন  মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ। শনিবার সকালে দেশ ব্যাপি পিপিআর রোগের ভ্যাকসিন প্রয়োগ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন তিনি। 

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের 'পিপিআর রোগ নির্মূল ও ক্ষুরা রোগ নিয়ন্ত্রণ প্রকল্পের আওতায় দেশব্যাপী ছাগল ও ভেড়ার পিপিআর রোগ নির্মূলের লক্ষ্যে বিনামূল্যে এই টিকা প্রয়োগ করা হচ্ছে। উদ্বোধন শেষে উপজেলার বেরং কম্পেক্স মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

সভায় সচিব বলেন, বিদেশী মাছ মাংসের আমাদের প্রয়োজন নেই । চাহিদার থেকে অনেক বেশী উ’দপাদন করছে বাংলাদেশ । বাংলাদেশ এখন মাছ মাংস রপ্তানী করার সক্ষমতা রাখে । বাংলাদেশের ৪৩ লক্ষ মেট্রিক টন মাছের প্রয়োজন । আমরা উদপাদন করছি ৪৪ লক্ষ মেট্রিক টনেরও বেশি। মাংসের প্রয়োজন রয়েছে ৭৩ লক্ষ মেট্রিক টন কিন্তু আমরা উদপাদন করছি ৭৬ লক্ষ মেট্রিক টন। 

শুধু দুধ ও ডিম উদপাদনে আমরা পিছিয়ে আছি। প্রতিবছর আমাদের ডিমের প্রয়োজন হয় মানুষ প্রতি ১০৪ টি । আমরা উদপাদন করছি ১০৩টি। এখন সরকার চাহিদা মিটিয়ে রপ্তানী করার লক্ষ্যে দুধ ও ডিম উদপাদনের জন্য দুটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে। অচিরেই এই প্রকল্পের মাধ্যমে দুধ ডিমের চাহিদা সম্পন্ন হবে।  তিনি বলেন সারাদেশে ছাগল ভেড়ার পিপিআর একটি মরনব্যধি রোগ।  

এ রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রতিবছর  বাংলাদেশে প্রচুর ছাগল ভেড়া মারা যায়। এতে  প্রান্তিক পর্যায়ের জনগোষ্ঠী আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ২০২২ সালের মধ্যে এই রোগকে নির্মূল করা সম্ভব হবে। 

পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক ড. সাবিনা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে  আলোচনায় বক্তব্য রাখেন প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডাঃ আব্দুল জব্বার শিকদার, মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী সামস আফরোজ,

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ,বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. নাথুরাম সরকার, তেঁতুলিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মাহমুদুর রহমান ডাবলু,উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহাগ চন্দ্র সাহা  প্রমুখ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য