পঞ্চগড়ে কিছুটা কমেছে সবজির দাম কমছেনা পেঁয়াজ ও মরিচের দাম

মোঃ কামরুল ইসলাম কামু,পঞ্চগড়ঃ 

বাজারে কমতে শুরু করেছে সবজির দাম।ফলে জনমনে কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে। তবে কমছেনা পেঁয়াজ, মরিচ ও আলুর দামও। বর্তমান প্রতিটি সবজিতে কেজি প্রতি ১০ টাকা থেকে ২০ টাকা কমেছে। থেমে আছে বয়লার পাকিস্তানি সোনালি ও দেশী মুরগীর দাম।বাজারে দেশী মাছ পাওয়া গেলেও দাম বেশী। ডিমের দাম বাড়তি। বর্তমান ডিমের হালি ৩৬ টাকা। শুক্ররবার বাজারে গিয়ে এ অবস্থা দেখা গেছে।

প্রায় এক মাস যাবত সবজির বাজার নিয়ে মানুষের মধ্যে এক ধরনের উদ্বেগ সৃষ্টি হয়েছিলো। মুলা,বেগুন ,পটল ,ঝিংগা, লাল শাক, পুই শাক সহ সব ধরনের সবজির দাম ছিলো সর্ব কালের রের্কড ছড়ানো। ৫০ টাকা থেকে ১০০ টাকা কেজি দরে সবজি বিক্রি হয়। সে সাথে অব্যহত ভারি বর্ষণ জনজীবন বির্পযস্ত করে তোলে। 

এর মধ্যে বেড়ে যায় পেয়াঁজ ,মরিচ ও আলুর দামও। বর্তমান আলুর কেজি ৪০/৪৫ টাকা। ভারত পেঁয়াজ রপ্তানী বন্ধ করে দিলে পেঁয়াজ বর্তশানে ৮০ টাকা দরেবিক্রি হচ্ছে। কাচাঁ মরিচ ২০০ থেকে ২৪০ টাকা। সম্প্রতি সময়ের চেয়ে কিছুটা  কমেছে সবজির দাম। ৮০ টার স্থলে ৪০/৫০,ঝিংগা ৬০ টাকার স্থলে ৪০ টাকা, বেগুন ৬০/৭০ টাকার স্থলে ৩০ টাকা থেকে ৫০ টাকা, লাল শাক ৬০/৭০ টাকার স্থলে ৪০/৫০ টাকা, লাউ ৩০/৩৫ টাকার স্থলে ২০ টাকা।

বাজারে সবজিতে দামের প্রভাব পড়ায় ডিমের দাম বাড়তে থাকে। বর্তমান এক হালি ডিমের দাম ৩৬ টাকা। বেড়েছে সোয়াবিন তেলের দাম। প্রতি লিটার পলি প্যাক সোয়াবিন ২১০ টাকা থেকে ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বযলার মুরগীর দাম আগের মতো। প্রতি কেজি বযলার ২২০ টাকা।

পাকিস্তানি সোনালী মুরগী ২২০ টাকা। বৃষ্টি না থাকায় সবজিতে কিছুুটা স্বস্তি ফিরে আসায় মানুষ হাফ ছেড়ে বাঁচলেন এমনটাই দেখা গেছে বাজারে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য