ডোমারে দূর্গা পুজোয় সনাতন ধর্মালম্বীদের পাশে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাসুম


রতন কুমার রায়, স্টাফ রিপোর্টার: 

সনাতন ধর্মালম্বীদের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব দূর্গা পুজোয় নীলফামারীর ডোমার উপজেলার সদর ইউনিয়নের নয়টি পুজা মন্ডবে সর্বক্ষনিক তত্ত্বাবধান ও বিভিন্নভাবে সহায়তা করে পাশে ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মাসুম আহমেদ। 

যষ্ঠির পূজা হতে বিজয়া দশমীর দিন পর্যন্ত তিনি ডোমার সদর ইউনিয়নের প্রতিটি পুজা মন্ডবে গিয়ে পুজা সুষ্ঠ ও উৎসবমূখব পরিবেশে পালন ও করোনা বিষয়ে সনাতন ধর্মলম্বিদের বিভিন্ন পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি প্রতিটি মন্ডবে আর্থিক সহায়তাও করেছেন। 

উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মাসুম আহমেদ আসন্ন ডোমার সদর ইউপি নির্বাচনে আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। গত ২০১৫ ইং সালের তিন মার্চ ডোমার ইসলামিয়া সিনিয়র দাখিল মাদ্রাসায় ডোমার সদর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী নির্ধারনে বর্ধিত সভা হয়। সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ময়নুল হকের সভাপতিত্বে ওই সভায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপক খায়রুল আলম বাবুল প্রধান অতিথি ও সাধারন সম্পাদক তোফায়েল আহমেদ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। 

ওই ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন প্রার্থী ছিল তৎকালীণ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মাসুম আহমেদ ও আওয়ামী লীগ নেতা হাফিজুল ইসলাম হাফিজ। দুই জনের মধ্যে কোন সমঝোতা না হওয়ায় তৃণমূলের ভোটের মাধ্যমে দলীয় প্রার্থী নির্বাচনের সিন্ধান্ত নেয়া হয় বর্ধিত সভায়। 

৬৫ জন কাউন্সিলর ভোট প্রদান করেন। এরমধ্যে ৪৩টি ভোট পান মাসুম আহমেদ ও ২২ টি ভোট পান হাফিজুল ইসলাম হাফিজ। উক্ত ফলাফল জেলার মাধ্যমে কেন্দ্রে পাঠানো হয়। তবে শেষ পর্যন্ত তৃণমূলের ভোটের ফলাফল উপেক্ষা করে হাফিজুল ইসলাম হাফিজকে দলীয় প্রার্থী নির্ধারন করা হয়েছে। 

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাসুম আহমেদ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দূর্গা পুজায় আওয়ামীলীগ পরিবারের সকল সদস্যকে সনাতন ধর্মালম্বীদের পাশে থাকতে বলেছেন। আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি সেই নির্দেশ মেনে চলার। তিনি আরো বলেন, গত ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী নির্বাচনে আমি তৃণমূলের দুই তৃতীয়াংশ ভোট পেলেও আমাকে দলীয় প্রার্থী করা হয় নাই। 

এরপরেও দলীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক আমি নৌকা প্রতিকের প্রার্থী হাফিজুল ইসলামের পক্ষে নির্বাচন করেছি। এবারো আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আমি ডোমার সদর ইউপি’র দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী হতে চাই। আশাকরি এবার আর তৃণমূলের সমর্থন উপেক্ষা করা হবে না।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য