পঞ্চগড়ের বড়শশীতে পল্লী বিদ্যুৎতের সংযোগ নিতে হয়রানির শিকার এলাকাবাসী

মো. কামরুল ইসলাম কামু, পঞ্চগড়ঃ 

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার বড়শশী ইউনিয়নের কাজীপাড়া এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগের নামে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।এই অভিযোগ ওই বড়শশী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত নেতা মনিরুজ্জামান রানার বিরুদ্ধে। 

সরকার বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ করলেও বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করাসহ বিভিন্ন অজুহাতে প্রত্যেক পরিবার থেকে কয়েক ধাপে ৫ হাজার থেকে ৮ হাজার টাকা আদায় করেছেন ওই যুবক। কিন্তু বিদ্যুৎ সংযোগের কোনো খবর নেই। মাসের পর মাস ঘুরাতে থাকেন সহজ সরল গ্রামের মানুষদের। 

ওই এলাকার ৭২টি পরিবারের মধ্যে সম্প্রতি ৫০টি পরিবার বিদ্যুৎ সংযোগ পায়। কিন্তু চাহিদা মতো টাকা না দেওয়ায় বাকি ২২ পরিবারকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া বন্ধ রাখে রানা। বিষয়টিতে প্রতিবাদ করায় সে এক যুবকের আবেদনের কাগজপত্র গায়েব করে দেয়। এক পর্যায়ে বাদ পড়া পরিবারগুলো পঞ্চগড় পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে যোগাযোগ করলে তারা ভ্রাম্যমাণ টিম পাঠিয়ে নির্ধারিত ৪৫০ টাকা ফি নিয়ে পরিবারগুলোর বিদ্যুৎ সংযোগের ব্যবস্থা করেন। 

স্থানীয়রা রানাসহ এর সঙ্গে জড়িতদের বিচার দাবি করে গত ১০ অক্টোবর পঞ্চগড় পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের উপ মহাব্যবস্থাপক বরাবরে লিখিতভাবে গণঅভিযোগ করেছেন।ভুক্তভোগী ইব্রাহিম জামান এলিন বলেন, ২০১৭ সাল থেকে রানা আমাদের বিদ্যুৎ দেওয়ার নাম করে ধাপে ধাপে ৫ থেকে ৮ হাজার করে টাকা নিয়েছে। 

এভাবে প্রায় সাড়ে ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা উঠায় রানা। বিষয়টি নিয়ে আমি প্রতিবাদ করায় আমার আবেদনের কাগজপত্র গায়েব করে দেয়।পল্লী বিদ্যুৎ পঞ্চগড় জোনাল অফিসের উপ মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) মেহেদী হাসান বলেন, আমরা ওই এলাকার মানুষের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। সেটি এজাহার আকারে বোদা থানায় দেওয়া হয়েছে। 

তার বিরুদ্ধে পুলিশ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। তিনি আরো বলেন, সরকার বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ করছে। আমাদের নির্ধারিত ৪৫০ টাকা জমা দিলেই গ্রাহক বিদ্যুৎ পাবেন। কিন্তু কিছু প্রতারক চক্র এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তাদের তথ্য আমাদের কাছে দিলে আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারবো।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য