পঞ্চগড়ের ডিসি সাবিনা ইয়াসমিনের পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন পেয়েছেন দক্ষ ও দায়িত্বশীল কর্মকর্তা

মোঃ কামরুল ইসলাম কামু পঞ্চগড়ঃ 
পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেছেন। বাংলাদেশের সুনামধন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের তৎকালীন চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এম আবুল কাশেম মজুমদারের তত্বাবধায়নে ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষে “হেলথ সার্ভিস ডেলিভারী থ্রো কমিউনিটি ক্লিনিক অব বাংলাদেশ: এ্যান এ্যাপ্রাইজাল’’ শীর্ষক অভিসন্দর্ভের জন্য তাকে পিএইচডি ডিগ্রী প্রদান করা হয়। 

গত ২৫ জুন বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের বিশেষ সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক সাবিনা ইয়াসমিনকে পিএইচডি ডিগ্রী প্রদান করা হয়। সাবিনা ইয়াসমিন অর্জিত এ ডিগ্রী তার শহীদ পিতা শেখ মাহাতাব উদ্দীন মনি মিয়া ও মরহুম মাতা সালমা বেগমকে উৎসর্গ করেছেন। 

অচিরেই গবেষণার এ বিষয়টি বই আকারে প্রকাশিত হবে এবং এটি স্বাস্থ্যখাত নিয়ে যারা গবেষণা করেন তাদের জন্য সহায়ক হবে বলে মনে করেন গবেষক সাবিনা ইয়াসমিন। সাবিনা ইয়াসমিন মালা একাধারে প্রশাসনের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তার পাশাপাশি জনপ্রিয় একজন কবি। প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও কবি হিসেবে লাভ করেছেন একাধিক পদক ও সম্মাননা। দক্ষ ও দায়িত্বশীল কর্মকর্তা হিসেবে পেয়েছেন জনপ্রশাসন পদক। 

ইতোমধ্যে তার ১৬টি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। নন্দিত কবি হিসেবে পেয়েছেন মহাকবি মাইকেল মধুসূদন পদক। শিক্ষা ও চাকুরি ক্যাটাগরিতে পেয়েছেন শ্রেষ্ঠ জয়িতার সম্মাননা।অসাধারণ প্রতিভার এ কর্মকর্তা ১৯৭১ সালে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার তৎকালীন গদাইপুর ইউনিয়নের মেলেকপুরাইকাটী প্রামের সম্ভান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা শহীদ শেখ মাহাতাব উদ্দীন মনি মিয়া ছিলেন তৎকালীন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে রাজাকারদের গুলিতে শহীদ হন মনি মিয়া। 

পিতাকে হারানোর পর সাবিনা ইয়াসমিনের সাফল্যের পেছনে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছিলেন মা সালমা বেগম। চলতি বছরের ৩০ জানুয়ারি না ফেরার দেশে চলে যান তার মা। ভাই সাবেক প্যানেল মেয়র শেখ আনিছুর রহমান মুক্ত পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের সরল গ্রামে বসবাস করছেন। সাবিনা ইয়াসমিন ২০০৩ সালে ২১ তম বিসিএস (প্রশাসন) কর্মকর্তা হিসেবে সরকারি চাকুরিতে যোগদান করেন। 

পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক হিসেবে তিনি সফল হয়েছেন। বিভিন্ন কাজের মাধ্যমে মানবিক জেলা প্রশাসক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। ব্যক্তিগত জীবনে সাবিনা ইয়াসমিনের স্বামী মো. শরীফ হোসেন হায়দার একজন বিচারক। তিনি পঞ্চগড়ের জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। তারা ছেলের নাম রুবাইয়াৎ ইশমাম প্রিয়ন্ত ও কন্যা পুষ্পিতা পারিজাত টিপ।

এদিকে জেলা প্রশাসক সাবিনা ই্য়াসমিনের পিএইচডি ডিগ্রী অর্জনে পঞ্চগড় প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. সফিকুল আলম সাধারন সম্পাদক মো. সাইফুল আলম বাবু জৈষ্ঠ সাংবাদিক মো. শহিদুল ইসলাম শহীদ, মো. কামরুল ইসলাম কামু, সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ, মো. সামস উদ্দীন চৌধুরী কালাম সহ প্রেসক্লাবের সকল নেতৃবৃন্দ তাকে অভিনন্দন জ্ঞাপন করেছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য