পঞ্চগড়ে বাড়ছে সবজির দাম

মোঃ কামরুল ইসলাম কামু পঞ্চগড়ঃ
কোনো ভাবেই সবজির লাগাম ধরে রাখা যাচ্ছেনা । খুচরা বিক্রেতা দায়ী করছে ফরেয়াদের। বুধবার পঞ্চগড় বাজারে গিয়ে দেখা যায় ছোট সাইজের করল্লা প্রতি কেজি ১২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। বড় করল্লা বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৭০ টাকা। আর পটল ৫০ টাকা। ২০ টাকার পেয়াঁজ ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। 

এতে  সবজির বাজারে গিয়ে সাধারন মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়ছে। কাঁচা মরিচের কেজি ২৪০ টাকা।ঝিঙ্গা এক কেজি  ৪০ টাকা। ঢেঁড়ষ এককেজি ৬০ টাকা। এতো দাম দিয়ে সবজি কিনতে হিমশিম খাচ্ছেন নিন্ম আয়ের মানুষ। বাজারে সবজির দর টালমাটাল বন্ধ হওয়ার আপাতত: কোনো লক্ষণ নেই’।

এদিকে দেশে অনেকটাই আমদানি নির্ভর পেয়াঁজের বাজার। বিশেষ করে ভারত থেকে আমদানি করা হয় মোট চাহিদার অর্ধেক পেয়াঁজ। কিন্তু হঠাৎ করেই পেয়াঁজের দাম বাড়তে শুরু করেছে। বুধবার পঞ্চগড় বাজারে এমনটাই দেখা গেছে। প্রতি কেজি পেয়াঁজে বেড়েছে ৮/১০ টাকা। বড় সাইজের এলসি’র পেঁয়াজ প্রতি কেজি ছিলো ২৫ টাকা। এখন তা বেড়ে ৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ছোট সাইজের পেয়াঁজ বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ২৮/৩০ টাকা। যা কদিন আগে বিক্রি হয়েছে ২৫ টাকা ও ২০ টাকা প্রতি কেজি।দেশি পেয়াঁজ প্রতি কেজি ৪৫ টাকা।

খুচরা বিক্রেতা  রেজাউল করিম বলেন‘ সবজির বাজার ফরেয়াদের হাতে চলে গেছে। তারা ১৬ টাকার সবজি ২৪ টাকায় বিক্রি করছে’। আমরা কি করবো’ পঞ্চগড় বাজারের খুচরা ও পাইকারি ব্যবসায়ি জুয়েল জানান ‘ আমদানি কমে যাওয়ায় পেঁয়াজের দাম বাড়তি। যদি আমদানি এমন থাকে তাহলে দাম আরো বাড়তে পারে।এদিকে একটি সূত্র জানা, গত এক সপ্তাহে ভারতের বাজারে পেয়াঁজের দাম বেড়েছে ৫১শতাংশ।ফলে দেশে পেয়াঁজের দাম বাড়ছে।

এছাড়া সবজির বাজার কদিন আগে বেশ চড়া ছিলো ‘ তা কিছুটা কমতে শুরু করেছে। কেজিতে ৫/১০ টাকা কমে সবজি এখন ২০/ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। সবজি কচু ৩০ টাকার স্থলে এখন ২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। লাউয়ের দামও কমেছে প্রতি পিস লাউ ছিলো ৩০ টাকা ‘ তা এখন ২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে মাছের বাজার এখনো চড়া।

এদিকে বয়লার মুরগীর দাম কমে গেছে ‘ প্রতি কেজি বয়লার ১৪০ টাকা থেকে নেমে এখন বিক্রি হচ্ছে ‘ ১০০ টাকা প্রতি কেজি। সোনালি মুরগী এখন ২০০ টাকা থেকে নেমে ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।দেশী মুরগী ৪০০ টাকার জায়গায় বর্তমানে ৩৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি বিক্রি হচ্ছে। খাসি ও গরুর মাংসের বাজার স্থিতিশীল রয়েছে।

এছাড়া পঞ্চগড় বাজারে চালের বাজার স্থিতিশীল রয়েছে ‘ মিনিকেট ৫০ কেজি প্রতি বস্তা পাইকারি ২৪৫০ টাকা থেকে ২৬০০ টাকা। খুচরা মূল্য প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪৮ থেকে ৫২ টাকা। আটাইশ প্রতি বস্তা ২১৫০ টাকা থেকে ২২০০ টাকা। খুচরা প্রতি কেজি ৪৫ থেকে ৪৭ টাকা প্রতি কেজি। মোটা প্রতিবস্তা ২০০০ টাকা। খুচরা প্রতি কেজি ৪০ থেকে ৪২ টাকা। গুটি প্রতি বস্তো ২০১০ টাকা থেকে২০২০ টাকা। খুচরা প্রতি কেজি ৪২ থেকে ৪৪ টাকা এবং স্বর্না প্রতি বস্তা ২১৫০ টাকা থেকে ২২০০ টাকা। খুচরা বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকা থেকে ৪৬ টাকা।চাল ব্যবসায়ি আব্দুল বারেক জানান‘ চালের দাম বাড়বে না‘ এবং কমার সম্ভাবনা নাই’। 

এদিকে চিকন চাল সরবরাহ স্বাভাবিক থাকলেও মোটা চাল বাজারে তেমন একটা পাওয়া যাচ্ছেনা’। চিকন চাল আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে। তবে বয়লার মুরগী ১০০ টাকার স্থলে ১২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। ইলিশের সররবাহ রয়েছে ‘ বাহির থেকে ব্যবসায়ীরা স্থানিয় ব্যবসায়ীদের ইলিশ সরবাহ করছে।’ তবে ছোট ইলিশের দাম কিছুটা কম । প্রতি কেজি ৫০০ টাকা। তবে বড় ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ১০০০ থেকে ১২০০ টাকা প্রতি কেজি।’ 

এদিকে শীত আসি আসি করলেও বাজারে মুলা পাওয়া যাচ্ছে। ‘ প্রতি কেজি মুলা এখন ৫০ টাকা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য