গোবিন্দগঞ্জে করোনা উপর্সগ নিয়ে মৃত ব্যক্তির লাশ দাফন করলো পুলিশ ও স্বাস্থ্যকর্মী

আশরাফুল ইসলাম গাইবান্ধাঃ গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরে চা বিক্রেতা আব্দুর রহমান (৫২) গত ৫ জুন শুক্রবার রাত সাড়ে ১১ টায় করোনা উপসর্গ নিয়ে নিজ বাড়ীতে মারা যান। তিনি পৌরসভার আরজি খলসির মৃত-গমির উদ্দিনের ছেলে।  করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিটির লাশ পরিবারের অসহযোগিতার ফলে  অবশেষে পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মীরা ও স্বেচ্ছাসেবকদের সহায়তায় দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। সে দীর্ঘদিন যাবৎ ডায়াবেটিস,কিডনি জটিলতা নিয়ে পরিবার চালাতে উপজেলা চত্বরে চা বিক্রি করতেন। আজ সেই লোকটির মারা যাওয়ার পর পরিবারের কেউ এগিয়ে আসেনি তার দাফনে। জানা গেছে, ঈদের পর থেকে তার অসুস্থ্যতা বাড়তে থাকে। এ নিয়ে গত ৫ জুন দুপুরে রহমান গোবিন্দগঞ্জের কোন এক ক্লিনিকে এসে চিকিৎসকের কাছে পরীক্ষা করে জানতে পারেন তার টাইফয়েডের সমস্যা। এর পর রহমান বাড়িতে এসে রাতেই মারা যান। দু’ ছেলে দু’ মেয়ে ও স্ত্রী সহ পরিবারের সকলইে করোনার ভয়ে মৃত- রহমানরে কাছে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। বিষয়টি ওই রাতেই গোবিন্দগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ জানতে পেরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও এর সাথে কথা বলে লাশ দাফনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। সেই অনুযায়ী ৬ জুন শনিবার সকাল পৌনে ১১ টায় থানা পুলিশ, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও, উপজেলা ভূমি মসজিদের ইমাম মাওলানা আরিফ বিল্লাহ ও মোয়াজ্জেম মোফাজ্জল হোসেন ও গ্রামবাসীর সহায়তায় মৃত-আব্দুর রহমানের দাফন কাজ সম্পন্ন করা হয় এবং পরিবারের সংশ্লিষ্ট সকলকে হোম কোয়ারাইন্টানে থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য