গুরুদাসপুরে ফতোয়ার শিকার সেই পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা প্রদান

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি
নাটোরের গুরুদাসপুরে ফতোয়ার শিকার পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.তমাল হোসেন এবং মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নিলুফা ইয়াসমিন রানীনগর এলাকায় গিয়ে সহায়তা সামগ্রী প্রদান করেন। এসময় স্বাভাবিক জীবনযাপনে স্থানীয় প্রশাসন ভুক্তভোগীদের পাশে আছে বলে আস্বস্থ্য করেন ইউএনও। পরে অসহায় পরিবারটিকে কেউ যেন ভবিষৎতে সমস্যা সৃষ্টি করতে না পারে সেজন্য এলাকাবাসীকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। ফতোয়া মুক্ত হয়ে স্বাভাবিক জীবনযাপনে ফিরে আসতে পেরে প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন অসহায় পরিবারটি।
উল্লেখ্য, গত ১৩ জুন শ্বাশুড়িকে নিয়ে রানীনগরের বাড়িতে ফেরার সময় মাছ চাষি রাশিদুলের পথরোধ করে স্থানীয় শুকচাঁদ আলীসহ কয়েকজন। তাদের কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে মারধর করা হয়। সেই টাকা দিতে রাজি না হলে শ্বাশুড়ি-জামাইয়ের মধ্যে অনৈতিক সম্পর্ক আছে বলে দেয়া হয় অপবাদ। পরে সালিশ বৈঠকে ফতোয়া জারি করে গ্রাম্য মাতবররা। বলা হয়, অনৈতিক সম্পর্কের কারণে স্ত্রীর সাথে ঘর করতে পারবে না রাশিদুল। পরে একঘরে করা হয় পরিবাররের সকল সদস্যদের। এঘটনায় মামলা হলে সোমবার অভিযুক্ত ৮জনকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য