মহাদেবপুরে বিনামূল্যে চিকিৎসা দিচ্ছেন অবঃ ডিপ্লোমা ইন ফার্মাসিষ্ট শহিদুল

কাজী সামছুজ্জোহা মিলন,নওগাঁ
নওগাঁর মহাদেবপুরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত অনেক রোগীদের যখন চিকিৎসা সেবা দিতে অনাগ্রহ প্রকাশ করেছেন অনেক ডাক্তার, যখন স্বেচ্ছায় চিকিৎসা থেকে সরে এসেছেন অনেক ডাক্তার, সেই সংকটময় সময়ে উপজেলার রাইগাঁ ইউনিয়নের সুপরিচিত চিকিৎসক শহিদুল ইসলাম চিকিৎসা সেবায় অসামান্য অবদান রেখে দৃষ্টান্ত স্থাপন করছেন। গতকাল রবিবার বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার রাইগাঁ ইউনিয়নের উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে ২০১৭ সালের ৩১ মে ডিপ্লোমা ইন ফার্মাসিষ্ট হিসেবে অবসর নেয়া শহিদুল ইসলাম প্রতিদিনের ন্যায় তার নিজ চেম্বারে বিনা টাকায় রোগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে। চিকিৎসা নিতে আসা ইউনিয়নের শিয়ালী গ্রামের কলিমুদ্দিনের স্ত্রী মমতা বেগম, হরিপুর গ্রামের দেলোয়ারের স্ত্রী সুরাইয়া বেগম, রাইগাঁ ইউনিয়ন বিএনপি' সাবেক সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলামের স্ত্রী কাজল রেখা জানান, তারা দীর্ঘদিন থেকে বিভিন্ন রোগ ব্যধির চিকিৎসা নিতে ডাক্তার শহিদুলের নিকট ছুটে আসেন। তিনি কোন টাকা পয়সা নেন না। তার চিকিৎসার হাত অনেক উন্নত। তার কাছে এসে টাকার অভাবে চিকিৎসা না নিয়ে কেউ ফেরত যাননি। সরেজমিন কালে এই প্রতিবেদককে শহিদুল ইসলাম বলেন, সে তার কর্মময় জীবন যেমন মানব সেবায় বিলিয়ে দিয়েছেন তেমনি বাকি জীবন যেন এভাবে সেবা করে যেতে পারেন। তিনি এজন্য সবার দোয়া সহযোগিতা চান। ডাক্তার শহিদুলের মহতী মানব সেবায় এলাকাবাসী তার মঙ্গল কামনায় পঞ্চমুখ। ইউনিয়নের যুবলীগ নেতা জামিউল ইসলাম বুলু জানান, করোনা ভাইরাসের সময় মানব কল্যাণে ডাক্তার শহীদুল হক যেভাবে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন তা বিরল দৃষ্টান্ত। আমরা তার মঙ্গল কামনা করি। ডাক্তার শহিদুল ইসলাম ইউনিয়নের সহরাই গ্রামের কাসেম আলীর ছেলে। এছাড়া তিনি সহরাই আশরাফুল উলুম মাদ্রাসার সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য