মহেশখালীতে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত যুবকের মৃত্যু, মামলা ভিন্নখাতে নিতে মরিয়া একটি চক্র

ডেস্ক নিউজঃ
মহেশখালীতে গেল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সংক্রান্ত কথা-কাটাকাটি জের ধরে প্রতিপক্ষ শাহেদের নেতৃত্বে হামলায় মাথায় লোহার রড়ের আঘাতে মারাত্নক আহত হয়ে ৩ দিন হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মারা গেল কলেজ পড়ুয়া যুবক মেহেদী ।

ঘটনাটি ঘটেছে ২ মে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার সময় উপজেলার শাপলাপুর নয়া পাড়া গ্রামে।

নিহত যুবক মেহেদী হাসান মিরাজ (২৫)। সে উক্ত গ্রামের আব্দু শুক্রুরের পুত্র। আজ ৫ মে মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার সময় চট্টগ্রাম মেড়িকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিওতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। তার মৃত্যুর খবর তাক্ষনিক ছড়ি পড়লে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, কলেজ পড়ুয়া ছাত্র মৃত্যুর ঘটনার মিশনে ২/৩ জন উঠতি বয়সের যুবক অংশ নিয়েছে বলে প্রথম থেকে সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশ হলেও জড়িত না থাকায় তারা ছাড়াও স্থানিয় রাজনৈতিক কুশীলদের ইন্ধানে উক্ত হত্যার ঘটনায় দুঃসময়ে আওয়ামী লীগের ত্যাগি নেতা শাপলাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ওসমান সরওয়ারকে জড়াতে ইতিমধ্যে একটি চক্র মিশনে নেমেছে বলে স্থানীয় তৃর্ণমূলের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন।

তিনি সভাপতি ওসমান জড়িত না থাকলেও যে কোন ফন্দি করে ফাঁসিয়ে দিলে দলের জন্য বড় ধরনের অশনি সংকেত বলে মনে করেন রাজনৈতিকবোদ্ধরা। ফলে হতাশায় ভোগবে তৃর্ণমূলের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। তবে জনশ্রুতি রয়েছে নির্বাচনে পরাজিত মেম্বার প্রার্থী সরওয়ারের পরিক্লপনায় এ হামলার ঘটনাটি ঘটে।
এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, উপজেলার শাপলাপুর উনিয়নের নয়া পাড়া গ্রামের আহত মেহেদী হাসান মিরাজ ও একই এলাকার শাহেদের সাথে গেল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে পছন্দের মেম্বার প্রার্থীদের ভোটার বিষয়ে নিয়ে আলাপ চলছিল ২ জন সহপাঠির মধ্যে এক পর্যায়ে কথা-কাটাকাটির জের ধরে বিষয়টি সংর্ঘষের রূপ নেয় এতে উভয় পক্ষের ২ জন আহত হয়। পরে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আহতদের উদ্ধার করে মহেশখালী হাসপাতালে নিয়ে গেলে ওই খানকার কর্তব্যরত চিকিৎসকরা আহত মিরাজের অবস্থা গুরুতর দেখে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে রেফার করে। সেখানেও চিকিৎসার অবনতি হওয়ায় থাকে চট্টগ্রাম মেড়িকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। মাথায় লোহার রডের আঘাতে গুরুত্বর আহত হওয়ায় তিনি আইসিও সাপোর্টে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। আজ সন্ধ্যা ৬ টার সময় এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিহতের লাশ চট্টগ্রাম থেকে বাড়ীতে নেয়া হচ্ছিল বলে নিহতের পারিবারিক সুত্র জানান।

মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর বলেন, যতটুকু জানতে পেরেছি হামলার ঘটনায় এক যুবক চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে বলে শুনেছি। অভিযোগ পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
/চ্যানেল কক্স নিউজ। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য