বৌভাত খেয়ে ফেরার পথে নৌকা ডুবির ঘটনায় লাশ হয়ে বাড়ী ফিরলো কনের বাবাসহ ৪ জন

মো: মাসুদ,রানা, কুড়িগ্রাম: 
কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের কাশিমবাজার এলাকায় ধরলা নদীতে নৌকা ডুবির ঘটনায় ১৮ ঘন্টা পর ১ নারীসহ নিখোঁজ ৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল। মেয়ের বিয়ের বৌভাতের দাওয়াত খেয়ে ফেরার সময় এ নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানায়, বুধবার বিকেল ৫টার দিকে মেয়ের বিয়ের বৌভাত খেয়ে ৫০ জন মানুষ একটি নৌকায় করে সাতভিটা থেকে কাশিম বাজারে ফেরার পথে ধরলা নদীতে ঝড়ের কবলে পড়ে এ নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বাকীরা উদ্ধার হলেও মেয়ের বাবাসহ ৪ জন নিখোঁজ হয়। বৃহস্পতিবার রংপুর থেকে আসা ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল সকাল থেকে অভিযান চালিয়ে ধরলা নদী থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে। সকাল থেকে অভিযান পরিচালনা করলেও সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টার মধ্যে একে একে ৪টি মরদেহ উদ্ধার হয়। মরদেহ উদ্ধারের পর ঐ এলাকায় পরিবারের সদস্যসহ উদ্ধার অভিযান দেখতে আসা মানুষের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। নিহতরা হলেন, কনের বাবা নুরু (৬০), আমেনা (৬১), জব্বার আলী (৪৫) ও কমর জামান (৪২)। নিহতদের বাড়ি দুর্গাপুর ইউনিয়নের গোড়াই এলাকায়। কুড়িগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মনোরন্জন সেন জানান, কুড়িগ্রামে কোন ডুবুরী না থাকায় রংপুর থেকে আসা ডুবুরী দলের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নদীতে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে নিখোঁজ ৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নৌকা ডুবির ঘটনায় উদ্ধার অভিযান দেখতে এসে কুড়িগ্রাম-৩ আসনের সংসদ সদস্য এমএ মতিন জানান, বিয়ের মতো আনন্দ মুহুর্তের একটি ঘটনার পর নৌকা ডুবিতে একটি বিষাদময় ঘটনা ঘটে গেল। এ ঘটনায় আমরা মর্মাহত। যারা এ ঘটনায় নিহত হয়েছেন তাদের পরিবারকে সরকারীভাবে সহযোগীতার চেষ্টা করবো।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য