ছমির উদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজে অধ্যক্ষের অপসারনের দাবীতে কর্ম বিরতি ও মানব বন্ধন

বিশেষ প্রতিনিধিঃ নীলফামারী ছমির উদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজের অবৈধ অধ্যক্ষের অপসারনের দাবীতে কর্ম বিরতি মানব বন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে প্রভাষক, শিক্ষক-কর্মচারীগন। সোমবার (১৬ মার্চ) সকালে প্রতিষ্ঠানের মুল ফটকের সামনে দাড়িয়ে রুটিন অনুযায়ী ক্লাস বিরতি রেখে ঘন্টাব্যাপী মানব বন্ধন কর্মসূচী পালন করেছেন তারা। মানব বন্ধনে প্রভাষক-শিক্ষকগন অবৈধ অধ্যক্ষ মেসবাহুল হক এর দূর্নীতি স্বেছাচারিতা, অসৌজন্যমূলক আচরন প্রতিষ্ঠানের লক্ষ-লক্ষ আতœসাত সহ নানা অনিয়মের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ তুলে ধরে আবারও তার অপসারন দাবী করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সহকারি শিক্ষক .. মিজানুর রহমান, মাহবুবুল হক, তিমির কুমার বর্ম্মন, নরেশ চন্দ্র, ভুবন মোহন তরফদার, ফাতেমা বেগম, সীমা পারভীন, শাহনা বেগম, প্রভাষক প্রকাশ চন্দ্র, প্রভাষক তুষার কান্তি রায় সহ সকল শিক্ষক-কর্মচারী। এছাড়াও শিক্ষকদের অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরে অধ্যক্ষের বিভিন্ন অনিয়ম দুর্ণীতি তুলে ধরে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করলেও কর্তৃপক্ষের কোন দৃষ্টি নেই। তারা আরো বলেন সদ্য সমাপ্ত এস.এস.সি পরীক্ষায় কেন্দ্র সচিব পরিবর্তন হওয়ায় নতুন কেন্দ্র সচিব দ্বারা পরীক্ষা সু-সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু নতুন কেন্দ্র সচিব দ্বারা পরীক্ষা শেষ হলেও চেক বই প্রদানে টাল বাহানার কারনে পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট কাজে নিয়োজিত শিক্ষকদের এখনও সম্মানি ভাতা প্রদান করা হয়নি। এছাড়াও ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে কোন প্রকার  ভর্তি ফি বেতন নেওয়া সম্ভব হয়নি। যার কারনে অধিকাংশ শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের মাথার উপরে বিশাল অংকের বোঝা হয়ে উঠছে। তারা বলেন, আমরা সকল শিক্ষক কর্মচারী উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে  এর সুষ্ঠ তদন্ত দাবী করছি।  উল্লেখ্য যে, গত ১৩ জানুয়ারী অধ্যক্ষের কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দুপুরে মানব বন্ধন ১০ ফেব্রুয়ারী পুনরায় একই দাবীতে মানবন্ধন করেন সকল শিক্ষক-কর্মচারী। এসময় শিক্ষকগন বলেন শান্তিপূর্ণ আন্দোলন কর্মসূচীর মাধ্যমে আমাদের দাবী আদায়ে কর্মসূচী চলমান রয়েছে। কর্মসূচী চলাকালীন সময়ে অধ্যক্ষ কক্ষে তালা দেখা যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য