ডিমলায় ট্রলি চাপায় শ্রমিক নিহত, ৬০ হাজার টাকায় রফাদফা!


নীলফামারী,ডিমলা প্রতিনিধিঃ নীলফামারীর ডিমলা সদরের পচারহাট ময়দানের পাড় নামক স্থানে ট্রলি চাপায় লিখন দাশ(৩২)নামের এক সন্তানের জনক শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষতিপুরন বাবদ মাত্র ৬০ হাজার টাকায় আপোষ মিমাংসার মাধ্যমে রফাদফার অভিযোগ উঠেছে।নিহত ওই শ্রমিক ডিমলা সদরের রামডাঙ্গা মাঝিপাড়ার বাসিন্দা।তার পিতা  খাখারু দাশ বর্তমানে ভারতে বসবাস করছেন।এলাকাবাসি সুত্রে জানা গেছে,নিহত লিখন দীর্ঘদিনযাবত বালু পাথর ব্যবসায়ী ট্রলির মালিক রোকনের ট্রলিতে বালু,পাথর,মাটি সহ বিভিন্ন মালামাল লোড-আনলোড শ্রমিকের কাজ করতেন। শনিবার(১৮জানুয়ারি)দুপুরে ট্রলিটি উপজেলার সদর ইউনিয়নের পচারহাট ময়দানের পাড় নামক স্থান হয়ে ডিমলা বাজারে আসবার সময় উক্ত স্থানে ট্রলিটির চালক ট্রলিটি হার্ড ব্রেক করলে ট্রলিতে থাকা শ্রমিক লিখন ছিটকে পড়ে পিছনের চাকায় চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন।পরে ট্রলির মালিক রোকনসহ স্থানীয় কিছু প্রভাবশালীরা মাত্র ৬০হাজার টাকার বিনিময়ে বিষয়টি আপোষ মিমাংসা করেন। নিহতের স্ত্রী স্বপ্না জানান,আমরা গরিব মানুষ তাই মামলা করার ঝামেলায় যেতে চাইনি বলে ট্রলির মালিকসহ বেশকিছু গণ্যমান্য ব্যক্তি মাত্র ৬০ হাজার টাকায় আপোষ মিমাংসার কথা বললে আমরা তাদের কথা অমান্য করতে পারিনি।থানার ওসি স্যারও আমাদের মিমাংসা করতে বলেছেন।অনেকেই বলেছেন মিমাংসায় রাজি না হলে টাকাও পাবোনা বিচারও পাবোনা।তাই মেনে না নিয়েও কোনো উপায় ছিলোনা আমাদের।চার চারটি সন্তান নিয়ে  কোথায় যাব কি করব বুঝতে পারছিনা। নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিমলা সদর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাসেম সরকার। ব্যাপারে জানতে চাইলে ডিমলা থানার ওসি মফিজ উদ্দিন শেখ বলেন,নিহতের পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।আমরা বিষয়ে একটি জিডি(সাধারন ডায়েরী)করব।ক্ষতিপুরন বাবদ মাত্র ৬০হাজার টাকায় মৃত্যুর ঘটনা আপোষ মিমাংসার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সে বিষয়ে কিছুই জানেননা বলে জানান।তবে থানায় ট্রলির মালিকসহ নিহতের পরিবারকে দীর্ঘ সময় উপস্থিত থাকতে দেখা গেছে।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য