স্ত্রী'কে কুপিয়ে হত্যা করল স্বামী

স্ত্রী'কে কুপিয়ে হত্যা করল স্বামী

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হরিনারায়ণপুরে স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করেছেন স্বামী। এ সময় বাধা দিতে গিয়ে তাঁর ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত হয়েছেন দুজন। তাদের কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ বুধবার সকাল আটটার দিকে হরিনারায়ণপুর গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পেছনের একটি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ স্বামী আওয়ালকে আটক করেছে।
প্রতীকী ছবি
ডেস্ক নিউজঃ
কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হরিনারায়ণপুরে স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করেছেন স্বামী। এ সময় বাধা দিতে গিয়ে তাঁর ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত হয়েছেন দুজন। তাদের কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আজ বুধবার সকাল আটটার দিকে হরিনারায়ণপুর গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পেছনের একটি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ স্বামী আওয়ালকে আটক করেছে। 

নিহত শাহানা খাতুন (২৮) আওয়ালের স্ত্রী। আহত দুজন আওয়ালের মা ও ভাই রাজু। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আওয়াল পেশায় রং মিস্ত্রি। তিনি মাদকাসক্ত। মাদকের টাকার জন্য তিনি প্রায়ই সংসারে ঝামেলা করেন। আজ সকালে মাদকের টাকার জন্য বাবা-মা ও স্ত্রীর সঙ্গে চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করেন তিনি। তাঁরা টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানান। একপর্যায়ে আওয়াল ঘর থেকে ধারালো অস্ত্র বের করে স্ত্রী শাহানাকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। শাহানাকে রক্ষা করতে গিয়ে আওয়ালের মা ও ভাই জখম হন। ঘটনাস্থলেই শাহানা মারা যান। আহত দুজনকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। 

হরিনারায়ণপুরের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) এনামুল হক প্রথম আলোকে বলেন, আওয়াল রংমিস্ত্রির কাজ করেন। আয়ের টাকা মাদকের জন্য খরচ করে ফেলেন। এ নিয়ে পরিবারের ঝগড়া লেগেই থাকত। 

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আরিপ বলেন, আওয়ালকে আটক করা হয়েছে। মাদকের টাকার জন্য তিনি এ ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। লাশ কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় হত্যা মামলা হবে।
/প্রথম আলো।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য