কুড়িগ্রামের রাজারহাটে অভিমানে গলায় ফাঁস দিয়ে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা, আহত এক যুবক


নয়ন দাস, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে ছাত্রীর আত্মহত্যা, ঘটনা ফেসবুকে প্রকাশ করায় যুবককে প্রহার পিতার সাথে অভিমান করে সপ্তম শ্রেনীতে পড়ুয়া এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। আত্মহত্যার ঘটনা ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ায় কতিপয় দুর্বৃত্ত এলাকার এক যুবককে পিটিয়ে আহত করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে, বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারী) রাজারহাট উপজেলার নাজিমখাঁ ইউনিয়নের রাঘব মৌজা গ্রামে। বর্তমানে ঐ গ্রামটিতে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, ওই গ্রামের হারুন মিস্ত্রির কন্যা সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছাত্রী হিরা খাতুন (১৩) বাবার সাথে অভিমান করে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা দিকে বাড়ির শয়ন কক্ষে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। প্রতিবেশীরা জানান, গত বুধবার দিবাগত রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে বাবা হারুন মিস্ত্রি বৃহস্পতিবার সকালে হিরা খাতুনকে বেদম প্রহার করে। তাদের ধারনা মারপিট করার কারনে বাবার সাথে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে হীরা আত্মহত্যা করেছে।

এদিকে হিরা খাতুনের আত্মহত্যার বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করায় সাইদুরের নেতৃত্বে কতিপয় দুর্বৃত্ত্ব অন্তর (২৫) নামের এক যুবককে বেধরক পিটিয়ে আহত করেছে। অভিযোগ উঠেছে আত্মহত্যার ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার ষড়যন্ত্র ফাঁস করায় ক্ষিপ্ত দুর্বৃত্তরা অন্তরকে মারপিট করেছে।রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রাজু সরকার হিরা খাতুনের আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চত করে বলেন, ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধারের পর সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি শেষে ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রামের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য