বুড়িমারীতে জুয়েল হত্যার ঘটনায় আরও একজন গ্রেফতার, ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন


হাসানুজ্জামান হাসান, লালমনিরহাটঃ
 

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় শহীদুন্নবী জুয়েল নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় আরও একজনকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত তিনটি মামলায় ৪৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে গ্রেফতারকৃত জাবেদ ওমর (৩০) কে লালমনিরহাট আমলি আদালত-৩ এর বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ফেরদৌসী বেগমের আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) মাহমুদুন্নবী।

এর আগে রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার ব্যাংকান্দা এলাকার নিজ বাড়ি থেকে ওই যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। লালমনিরহাট জেলা ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি রিমান্ড আবেদনের শুনানির দিন ধার্য করে গ্রেফতার আসামি জাবেদ ওমরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। গ্রেফতারকৃত জাবেদ ওমর লালমনিরহাটের পাটগ্রাম পৌরসভার এক নম্বর ওয়ার্ডের ব্যাংকান্দা এলাকার মৃত আজিজার রহমানের ছেলে। জানা গেছে, জুয়েল হত্যার ঘটনায় করা তিন মামলায় পুলিশ এখন পর্যন্ত ৪৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে হত্যা মামলায় ১৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। যার মধ্যে মূলহোতা আবুল হোসেন ওরফে হোসেন ডেকোরেটর এবং মসজিদের খাদেম জোবেদ আলীসহ ৬ জন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

নিহত শহীদুন্নবী জুয়েল রংপুর শহরের শালবন মিস্ত্রিপাড়া এলাকার আব্দুল ওয়াজেদ মিয়ার ছেলে। তিনি রংপুর ক্যান্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের সাবেক গ্রন্থাগারিক এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র। গত বছর চাকরিচ্যুত হওয়ার পর তিনি মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন। উল্লেখ্য: ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর রাত ৮ টার দিকে পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী বাজারের বাসকল এলাকায় শহীদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যা করা হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য