নীলফামারীর ডোমারে প্রতারকদের বিচার ও টাকা ফেরতের দাবীতে সড়ক অবরোধ


রতন কুমার রায়-স্টাফ রিপোর্টার:
 

নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় বিভিন্ন লোভনীয় অফার দিয়ে সহস্রাধীক নারীর কাছে প্রায় ছয় কোটি টাকা হতিয়ে নিয়ে পালিয়ে গেছে ডোমার বাজার সমবায় সমিতি নামের একটি প্রতারক চক্র। সেই টাকা ফেরতের দাবীতে শনিবার সকাল ১১ টা হতে ডোমার বাজার রেলঘুন্টি মোড়ে প্রায় এক ঘন্টা ডোমার-ডিমলা সড়ক অবরোধ করে রাখে চার শতাধীক ভুক্তভোগী নারী। 

ভুক্তভোগী নারী পারুল বেগম (৩০), সেফালী আক্তার (২০), উম্মে হাবিবা (৪৮) জানান, ৮০ হাজার টাকা সমবায় সমিতিতে জমা দিলে তিনদিন পর একটি মটরসাইকেল দেয় এবং ১৫ দিন পর সেই টাকা ফেরতও দেয়। এভাবে কয়েকজনকে বিভিন্ন সুবিধা দেয়। এরপর মাত্র দেড় মাসে হাজারের উপরে সদস্য যুক্ত হয়। এতে প্রায় ছয় হতে সাত কোটি টাকা নিয়ে প্রতারকরা পালিয়ে যায়। 

মারুফা আক্তার (২৫), শিরিনা বেগম (৩৩) বলেন, আমরা গরু-ছাগল বিক্রি করে সমিতিতে টাকা দেই। আমাদের টাকা নিয়ে প্রতারকরা পালিয়ে যায়। টাকা ফেরত না পাওয়ায় আমাদের অনেককে বাড়ী থেকে বের করে দিয়েছে। আমরা এখন কি করবো? আর কোথায় যাবো? আমাদের টাকা ফেরত না দেওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাবো। মুন্নি আক্তার (৩২) ও লাকি বেগম (৩৯) বলেন, দ্রুত আমাদের টাকা ফেরত ও প্রতারকদের গ্রেফতার করা না হলে, আমরা আমরণ অনশন শুরু করবো।

এ বিষয়ে ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান জানান, সমিতির শুরুতে আমরা নারী সদস্যদের ওইখানে টাকা বিনিযোগ করতে নিষেধ করি। তারা আমাদের কথা না শুনেনি, উল্টো পুলিশ সদস্যদের লাঞ্চিত করে। থানায় কেউ অভিযোগও করছে না। অভিযোগ পেলে দ্রুত গ্রেফতার করা হবে। 

প্রসঙ্গত, প্রতারকরা গ্রামের অসচেতন নারীদের টার্গেট করে ওই সমবায় সমিতি গড়ে তোলে। এখানে প্রায় সহ¤্রাধীক সদস্যদের সবাই নারী। গত ১৪ ডিসেম্বর সোমবার টাকা ফেরত পাওয়ার জন্য উক্ত স্থানে সড়ক অবরোধ করেছে ওইসব ভুক্তভোগী নারী সদস্যরা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য