পঞ্চগড়ে জয়িতা অন্বেষনে বাংলাদেশ অনুষ্ঠানে জয়িতাদের সম্মাননা প্রদান


পঞ্চগড় থেকে  কামরুল ইসলাম কামুঃ

আর্ন্তজাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস উপলক্ষে ‘জয়িতা অন্বেষনে বাংলাদেশ’ এ পাঁচ ক্যাটাগরিতে পঞ্চগড় জেলা শ্রেষ্ঠ পাঁচ জয়িতা ও সদর উপজেলা শ্রেষ্ঠ পাঁচ জয়িতাকে সংবর্ধণা দেয়া হয়েছে। 

গতকাল বুধবার বিকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে তাদের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্রেস্ট, সনদপত্র ও চাদর তুলে দেন জেলা প্রশাসক ড. সাবিনা ইয়াসমিন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আজাদ জাহানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম। পরস্পরের নির্বাহী পরিচালক ও জেলা পরিষদ সদস্য আকতারুন নাহার সাকীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রুখশানা মমতাজ। 

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য জেলা পর্যায়ে পাঁচজন এবং সদর উপজেলার পাঁচজন নারীকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। জেলা পর্যায়ের পাঁচ জয়িতা হলেন অর্থনৈতিক সাফল্য অর্জনকারী দেবীগঞ্জ উপজেলার ভুল্লিপাড়া গ্রামের লিনা আক্তার, সফল জননী হিসেবে বোদার চন্দনপাড়া গ্রামের আনোয়ার আলম, সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদানের জন্য জেলা সদরের পুরাতন পঞ্চগড় এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা রোকেয়া বেগম, 

শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী তেঁতুলিয়া উপজেলার দর্জিপাড়া গ্রামের মোছা. রোজিনা এবং নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করেছেন এমন নারী আটোয়ারী উপজেলার রাণীগঞ্জ গ্রামের সেবিকা রানী। 

সদর উপজেলা পর্যায়ের পাঁচ জয়িতা হলেন অর্থনৈতিক সাফল্য অর্জনকারী পঞ্চগড় পৌর এলাকার ডোকরোপাড়া গ্রামের হোসনে আরা বানু শিখা, সফল জননী হিসেবে মাগুড়া ইউনিয়নের মাগুড়া প্রধানপাড়া গ্রামের সেলিনা বেগম, সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদানের জন্য পুরাতন পঞ্চগড় এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা রোকেয়া বেগম, 

শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী পৌর এলাকার রৌশনাবাগ গ্রামের মিশকাত আক্তার এবং নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করেছেন এমন নারী পৌর এলাকার কায়েতপাড়া গ্রামের মোছাঃ বেগম।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য