সৈয়দপুর আসন্ন পৌর নির্বাচন ৯৭ কাউন্সিলর প্রার্থী তৎপর সরগরম পাড়া-মহল্লা


মিজানুর রহমান মিলনঃ

আসন্ন সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে পৌর এলাকার ১৫টি ওয়ার্ডের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীদের নির্বাচনী গণসংযোগ, মতবিনিময় ও ঘরোয়া বৈঠক বেশ জোরেশোরেই চলছে। নির্বাচনের মাঠে বর্তমান ও সাবেক কাউন্সিলরসহ পুরাতন প্রার্থীদের সাথে এবার যোগ হয়েছে নবাগত বহু প্রার্থী। 

এসব প্রার্থীরা তাদের নিজ ওয়ার্ডকে পরিচ্ছন্ন, মাদকমুক্ত ও মডেল ওয়ার্ড গড়ে তোলার প্রত্যয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচারণা। তারা কর্মী সমর্থকদের নিয়ে ভোটারদের  দোয়া ও সমর্থন চাইছেন। প্রচার-প্রচারণায় পুরাতন ও নবীন প্রার্থীরা বর্তমান কাউন্সিলরদের করোনাকালের ভূমিকা, অনিয়ম ও প্রতিশ্রুতি ভঙ্গের নানা কর্মকান্ড তুলে ধরছেন। একই সঙ্গে নিজের কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরছেন ভোটার ও সুধীজনদের কাছে।

অপরদিকে বর্তমান কাউন্সিলররা তাদের সকল কার্যক্রম ও অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে ভোটারদের মন গলানোর চেষ্টা করছেন। যদিও সৈয়দপুর পৌরসভার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়নি। তারপরও থেমে নেই প্রার্থীদের দৌঁড়ঝাপ।

এবারের নির্বাচনে পৌরসভার ১৫টি ওয়ার্ডে বর্তমান ও সাবেক কাউন্সিলরসহ ৯৭ জন প্রার্থী মাঠে রয়েছেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত প্রার্থী সংখ্যার এমন চিত্র উঠে এসেছে তাদের পোস্টার-ব্যানার,  বিলবোর্ড ও স্থানীয় সূত্র থেকে। যদিও এ সংখ্যা বাড়তে বা কমতেও পারে। এসব প্রার্থীদের মধ্যে বর্তমান কাউন্সিলর ১৫ জন, সাবেক কাউন্সিলর ১১ জন, বিভিন্ন সময়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা ১৭ জন। তাদের সাথে নির্বাচনের মাঠে যোগ দিয়েছেন ৫৪ জন নবীন প্রার্থী। 

গোটা পৌর এলাকায় বর্তমান ও সাবেক কাউন্সিলরদের সাথে পাল্লা দিয়ে সম্ভাব্য নবীন প্রার্থীরা মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। সম্ভাব্য প্রার্থীদের তৎপরতায় পৌর এলাকার প্রতিটি ওয়ার্ডের পাড়া মহল্লায় শুরু হয়েছে নির্বাচনী আমেজ। প্রার্থীরা প্রতিটি ওয়ার্ডে মতবিনিময়ের নামে কর্মী ও সমর্থক বাড়াতে আয়োজন করছেন আপ্যায়নের। সম্ভাব্য নবীন প্রার্থীদের এমন আয়োজনে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে অন্যান্য কাউন্সিলর প্রার্থীরাও একই পথ অনুসরণ করছেন।

গত কয়েকদিনে বেশ কিছু ওয়ার্ড ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে বর্তমান কাউন্সিলরদের পাশাপাশি সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে যারা মাঠে রয়েছেন তারা হলেন- ১নং ওয়ার্ডঃ এ ওয়ার্ডে সম্ভাব্য প্রার্থী হতে পারেন ৭ জন। তারা হলেন মো.শাহীন হোসেন (বর্তমান কাউন্সিলর), নতুন প্রার্থীরা হলেন নূরুল আমিন প্রামানিক, সাব্বির আহমেদ সাবের, রশিদুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম কোটু, লিটন ও আহসান হাবিব আপন। 

২নং ওয়ার্ডঃ মো.গোলাম মোস্তফা (বর্তমান কাউন্সিলর), পুরোনোদের মধ্যে রয়েছেন জাহাঙ্গীর আলম ডাবলু, সৈয়দ সিকান্দার আজম (সাবেক কাউন্সিলর),ইসরাইল কোরানী, মাহতাব উদ্দিন চেতনা। নতুন প্রার্থী হিসেবে মোস্তাফিজুর রহমান সরকার মুন্না ও সবুজ নামে দুজনের নাম শোনা যাচ্ছে। 

৩নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর জিয়াউল হক জিয়ার পাশাপাশি পুরোনাদের মধ্যে রয়েছে মির্জা শওকত আকবর (রওশন মহানামা), সাখাওয়াত হোসেন শওকত। নতুনরা হলেন আমিনুর চৌধুরী, সুমন চন্দ্র ও রাশেদ।

৪নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর জোবায়দুল ইসলাম মিন্টুর সাথে প্রার্থী হিসেবে যারা মাঠে রয়েছেন তারা হলেন সাবেক কাউন্সিলর রাজু আহমেদ। নতুনদের মধ্যে রয়েছেন রবিউল ইসলাম, মোতাহার আলী খান মন্টি, সিদ্দিকুল আলম লিটন, এইচএম মনির হোসেন,শেখ মাসুম ও পলাশ।

৫নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর শেখ মোহন ছাড়াও সাবেক কাউন্সিলর আখতার হোসেন ফেকুসহ কাজী নজরুল ইসলাম রয়েল। নতুনদের মধ্যে রয়েছে সাদেদুজ্জামান দিনার, নাদিম আকতার ও লিটন।

৬নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর শাহিনুল ইসলাম মিঠুর সাথে পুরাতন যারা রয়েছে তারা হলো সাবেক কাউন্সিলর মোহাম্মদ আলীসহ মাজিদ ইকবাল,মো. ইশতিয়াক। নতুনরা হলেন আফতাবুজ্জামান ম্যাক্সিম, মো. রুবেল হোসেন ও মনিরুজ্জামান মিলন।

৭নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর শাহিন আকতার ছাড়া পুরাতন কারও নাম শোনা না গেলেও আরমান ও আকবর নামে নতুন দু’জনের নাম শোনা যাচ্ছে। 

৮নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর আল মামুন সরকারের সাথে যারা পুরোনো রয়েছে তারা হলেন সাবেক কাউন্সিলর মো. মোসলেম উদ্দিন, আবু সরকার,আমিনুল হক আমিন। নতুনরা হলেন মো. বেলাল উদ্দিন, মহসিন মন্ডল মিঠু, মো.বাবুল, শেখ নোমান ও হিটলার শাহাজাদা। 

৯নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর আজগার আলী ছাড়াও পুরোনাদের মধ্যে রয়েছেন সাবেক কাউন্সিলর আমিনুল ইসলাম সরদারসহ আব্দুল হালিম। নতুনদের মধ্যে রয়েছেন ফরহাদ হোসেন, হাবিবুর রহমান বাপ্পি, শহিদুল ইসলাম লিটন ও আনোয়ার হোসেন হৃদয়। 

১০নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর কাজী মনোয়ার হোসেন হায়দারের সাথে সম্ভাব্য পুরোনো প্রার্থী রয়েছেন ডা. আরশাদ আলী। এ ওয়ার্ডে নতুনরা হলেন মো. রাশেদ, আবু সাঈদ, কাজী রুবেল, রবিউল ইসলাম, ইমরান আনসারী। 

১১নং ওয়ার্ডঃ নির্বাচনী মাঠে বর্তমান কাউন্সিলর এরশাদ হোসেন পাপ্পুর সাথে পুরোনোদের মধ্যে রয়েছে শফিউর রহমান বাবু। এ ওয়ার্ডে নতুনদের মধ্যে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন মো. মাজাহারুল ইসলাম বসুনিয়া (মিজু), ফরহাদ হাসান ফিরোজ ও রফিকুল ইসলাম। 

১২নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর আব্দুল খালেক সাবুর সাথে পুরোনোদের মধ্যে রয়েছে সাবেক কাউন্সিলর সুলতান খান ঢেনুসহ মো. ফাহিম হোসেন। নতুনদের মধ্যে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলো নুর মো. ওয়ালিউর রহমান রতন,মশিউর রহমান, ইশা মিঠু ও খালিদ আজম।

১৩নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর সৈয়দ মঞ্জুর আলম, সাবেক কাউন্সিলর সরকার কবির উদ্দিন ইউনুস ও ইকবাল হোসেন গুড্ডু। সম্ভাব্য নতুন প্রার্থীরা হলেন শাহাজাদা রকি, গুড্ডু ও ফজলুর রহমান। 

১৪নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর আবিদ হোসেন লাড্ডানের সাথে পুরোনোদের মধ্যে রয়েছেন মো. জোবায়দুর রহমান শাহীন ও মো. সালাম রেজা। 

১৫নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর তারিক আজিজ ছাড়াও পুরোনোদের মধ্যে সাবেক কাউন্সিলর আবুল কাশেম দুলু সরকার ও মো. আসলাম বুদ্ধু। নতুন সম্ভাব্য পারভেজ আলম,পারুল বেগম ও রেজওয়ান আক্তার পাপ্পু। কাউন্সিলর পদের প্রার্থীরা ওয়ার্ড ওয়ার্ডে চালিয়ে যাচ্ছেন বিরামহীন প্রচারণা।  তফসিল ঘোষণার পর জমে উঠবে নির্বাচনী লড়াই ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য