পঞ্চগড়ে ট্রাক ওপুলিশ ভ্যানের সাথে সংঘর্ষ নিহত,এক


মো. কামরুল ইসলাম কামু, পঞ্চগড়ঃ

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সামনে পুলিশের গাড়ির সাথে ট্রাকের সংঘর্ষে ট্রাকচালক মনোয়ার হোসেন (৩৮) নিহত হয়েছে। এ সময় তিন পুলিশ সদস্যসহ আহত হয়েছেন আরো ছয়জন। আহতদের উদ্ধার করে বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। 

এদিকে গুরুতর আহত এক পুলিশ সদস্যকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।সোমবার দুপুরে  এই ঘটনা ঘটে। নিহত মনোয়ার হোসেনের বাড়ি মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার ভোমরদহ এলাকায়। সে ওই এলাকার মৃত মোকাদ্দেস বিশ্বাসের ছেলে। আহতরা হলেন পঞ্চগড় জেলা পুলিশের কনস্টেবল আব্দুল্লাহ, কনস্টেবল এরশাদ হক ও গাড়িচালক (কনস্টেবল) মোরশেদ আলম, পঞ্চগড় তেঁতুলিয়া উপজেলার জুগিগছ এলাকার নুরুল ইসলাম (৪০), বোদা উপজেলার ময়দানদিঘী এলাকার ফজলুর রহমান (৪৫) ও একই এলাকার বাবুল হোসেন (৩৭)।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, দুপুরে ময়দানদিঘী বাজারে পুলিশের পক্ষ থেকে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের জন্য পুলিশের গাড়িতে (পিকআপ ভ্যান) করে ময়দানদিঘী যাচ্ছিলেন পুলিশের কয়েকজন সদস্য। যাওয়ার পথে গাড়িটি ময়দানদিঘীর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির কাছে পৌঁছালে বিপরীত থেকে বেপরোয়াগতিতে আসা একটি ট্রাকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। দুমড়ে-মুচড়ে যায় পুলিশের গাড়িটি। এ সময় দুটি মোটরসাইকেল ও একটি পিকআপ এসে একই জায়গায় ধাক্কা খায়। স্টিয়ারিং বুকে চাপা লেগে ঘটনাস্থলেই ট্রাকচালক মনোয়ার হোসেন মারা যান।

স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। গুরুতর আহত পুলিশের গাড়িচালক মোরশেদ আলমের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। উদ্ধার কাজে সহায়তা করে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

বোদা থানার ওসি  (তদন্ত) আবু সায়েম মিয়া বলেন, নিহত ট্রাকচালকের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। ট্রাকটি আটক করা হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য