এক সময়ের সরকারের টাকা লুটে নেওয়া হাসকিং মেইল গুলি চুক্তি করেও গোডাউনে দেয়নি চাল

চৌধুরী নুপুর নাহার তাজ, দিনাজপুরঃ

দিনাজপুর জেলার ১৩ টি উপজেলার হাসকিং মিল গুলির মিলাররা সরকারের সাথে চুক্তি করেও গোডাউনে চাল দেয়নি অনেকে। দিনাজপুরের খানসামায় সরকারি ভাবে হাস্কিং মেইলগুলি চাল  দেওয়ার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয় কিন্তু এখন পর্যন্ত সরকারি বরাদ্দের চুক্তি থাকার পরেও অনেক হাস্কিং মেইল মালিক সরকারকে দেয়নি সেই চুক্তিকৃত চাল। 

এক সময়ে বাজারে চাউলের মূল্য কম থাকায় হাস্কিং মেইল মালিকরা লুফে নিয়েছিলো ব্যাপক সুযোগ সুবিধা কিন্তু বর্তমানে চাউলের মূল্য উর্ধ্ব গতি হওয়ায় অনেক মেইলাররা বরাদ্দকৃত চাল সরকারি গোডাউনে দেয়নি। ফলে সরকারের চাহিদার ঘাটতি রয়েছে গোডাউন গুলোতে।

এ বিষয়ে খানসামা উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ মোস্তফা এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ৮৮৩.১৪০ মেট্রিকটন ৩৬ টাকা কেজি দরে উপজেলা থেকে ক্রয়ের সিদ্ধান্ত হয়। এ বিষয়ে পাকের হাট  খাদ্য গুদামের কর্মকর্তা সৌমিত্র বসাক জানান, চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পরও অনেক জন মিলার চাউল দেয়নি তাদের রিপোর্ট তৈরি করে কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ করা হয়েছে।

এব্যাপারে খানসামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, যে সমস্ত হাস্কিং মেইল চুক্তি থাকার পরেও চাল দেয়নি সে সমস্ত হাস্কিং মেইল মালিকদের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর সিদ্ধান্ত গ্রহন করবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য