কিশোরগঞ্জে আগাছা দিয়ে ঢাকা পড়েছে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার


খাদেমুল মোরসালিন শাকীর, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ
  

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারটি অযত্ন আর অবহেলার কারণে ঝোঁপ ও জঙ্গলে ঢেকে পড়েছে,দেখার কেউ নেই। 

ফেব্রুয়ারী মাস কে বলা হয় ভাষার মাস। ১৯৫২ সালে এই মাসে ভাষার জন্য  জীবন দিয়ে রাষ্ট্রভাষা বাংলা কে  বিশ্বের বুকে  মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করেছেন যারা তাদের স্মরণে এ শহীদ মিনার। কিন্তু দীর্ঘদিন থেকে শহীদ মিনার চত্বর কোন ধরণের পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ না করার কারণে কিশোরগঞ্জের এ শহীদ মিনার চত্বরটি বন জঙ্গলে রুপ নিয়েছে। যাহা দীর্ঘ দিনেও চোঁখে পড়েনি উপজেলা প্রশাসনের। 

সরেজমিনে দেখা গেছে, ফেব্রুয়ারিসহ অন্যান্য দিবসকে কেন্দ্র করে শহীদ মিনারসহ আশে পাশে করা হয় পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ। শহীদ দিবস ও স্বাধীনতা দিবসের দু’দিন আগে থেকে এ চত্বর পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করা হলেও জঙ্গল পরিস্কার করানোর জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়নি কোন উদ্যোগ। 

অথচ শহীদ দিবস ও স্বাধীনতা দিবস চলে গেলেই এই শহীদ মিনার যেন পড়ে থাকে অনাদও ও অবহেলায়। পুরো শহীদ মিনার ভরে যায় আগাছায় ও বেষ্টনী অপরিষ্কার অপরিচ্ছন্নতায় ফলে মরিচা ধরে তার রূপ হারিয়ে ফেলেছে। শহীদ মিনারে নেই কোনো আলোকসজ্জার ব্যবস্থা। 

তাছাড়া এ শহীদ মিনারটি রক্ষনা বেক্ষনের জন্য কোন নির্দিষ্ট ব্যক্তি না থাকায়  ক্ষোভ  প্রকাশ করেছেন উপজেলার বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ ও সাধারণ মানুষ। পাশাপাশি শহীদ মিনারের যথাযথ মর্যাদা ও পবিত্রতা ক্ষুন্ন হচ্ছে  বলেও তাদের দাবী। 

এ বিষয়ে প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট মহলের কাছে কিশোরগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা, ভাষাসৈনিক ও সচেতন মহলের একটি দাবি তারা যেন শহীদ মিনারের মর্যাদা ও পবিত্রতা রক্ষা করার জন্য একটি জরুরী পদক্ষেপ  গ্রহণ করেন। 

এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রোকসানা বেগম বলেন, শহীদ মিনারটি দ্রুত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য