পীরগঞ্জে ইউএনও পদ শুন্য ! ভোগান্তিতে জনসাধারন

মাহমুদুল হাসান, পীরগঞ্জ রংপুরঃ

রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলায় প্রায় একুুশ দিন যাবত ইউএনও নেই।  এসিল্যান্ডকে দিয়ে ভারপ্রাপ্ত ইউএনওর কাজ করায় ভোগান্তিতে পড়েছে উপজেলাবাসী। জানা গেছে, চলতি বছরের ২২ জুন ইউএনও মেজবাউল হোসেন  পীরগঞ্জে যোগদান করেন।

যোগদানের তিন মাসের পূর্বেই  ১২ সেপ্টেম্বর তাকে বদলি করায় ১৯ দিন ধরে ইউএনওবিহীন চলছে পীরগঞ্জ। অপরদিকে ইউএনও মেজবাউলের স্ত্রী ওয়াহিদা খানম  দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটের নির্বাহী কর্মকর্তা ছিলেন। 

তিনি গত ৩ সেপ্টেম্বর রাতে সরকারি বাসভবনে দুর্বৃত্তের হামলার শিকার হলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এপিডি অনুবিভাগ গত ১২ সেপ্টেম্বর ঘোড়াঘাটের ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) এবং তার স্বামী পীরগঞ্জের ইউএনও মেজবাউল হোসেনকে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগে সিনিয়র সহকারী সচিব পদে বদলি করেন।

ফলে দুই উপজেলায় ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা দিয়ে অফিস চললেও ৪ ইউনিয়ন বিশিষ্ট ঘোড়াঘাটে ইউএনও দেয়া হয়। অথচ ১৫ টি  ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা বিশিষ্ট পীরগঞ্জে ইউএনও পদায়ন করা হয়নি।

পীরগঞ্জের এসিল্যান্ড আফতাবুজ্জামানকে দিয়ে ইউএনওর কার্যক্রম চালানোর কারণে সরকারি সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। পাশাপাশি পদাধিকার বলে যে সমস্ত সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ইউএনও ম্যানেজিং কমিটি ও গভর্নিং বডির সভাপতি হিসেবে আছেন সেসব প্রতিষ্ঠানের বেতন বিলে স্বাক্ষর নিতে না পারায়  ভোগান্তিতে পড়েছেন অনেক শিক্ষক- কর্মচারী।

আবার প্রতিদিনই জমিজমা সংক্রান্ত খাজনা, খারিজ ও নামজারিতেও মানুষজন ভোগান্তিতে পড়ায় জমি ক্রয়-বিক্রয়েও বিঘ্ন হচ্ছে। এ ব্যাপারে দায়িত্বপ্রাপ্ত ইউএনও এসিল্যান্ড আফতাবুজ্জামান বলেন, এসিল্যান্ড অফিসেই প্রায় ১০টি পদ শূন্য।

আবার ইউএনওর কাজও আমাকে করতে হচ্ছে। এজন্য সাধারণ মানুষ ইউএনও অফিস এবং এসিল্যান্ড অফিস থেকে সময়মতো সঠিক সেবা পাচ্ছেন না।

রংপুরের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) জাকির হোসেন মুঠোফোনে বলেন, পীরগঞ্জে ইউএনওর ব্যাপারে আমরা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছি। তারা যখনই পোস্টিং দেবে তখনই আমরা পীরগঞ্জে ইউএনও দেব। উল্লেখ্য, ইতোপূর্বে  ওয়াহিদা খানম পীরগঞ্জে ৮৩ দিন ইউএনও হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য