সৈয়দপুরের উন্নয়ন, সম্ভাবনা ও বঞ্চনা বিষয়ক গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত


মিজানুর রহমান মিলন, স্টাফ রিপোর্টারঃ

নীলফামারীর সৈয়দপুরে ‘উন্নয়ন, সম্ভাবনা ও বঞ্চনা’ বিষয়ক এক গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শনিবার শহরের সৈয়দপুর প্লাজা মার্কেটের রেড চিলি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে ওই গোলটেবিল অনুষ্ঠিত হয়। সৈয়দপুর থেকে প্রকাশিত নীলফামারী জেলার জনপ্রিয় সাপ্তাহিক পত্রিকা আলাপন  আয়োজিত দিনব্যাপী এ বৈঠকে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত  আসনের সংসদ সদস্য রাবেয়া আলীম এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সৈয়দপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র আখতার হোসেন বাদল।

এতে সভাপতিত্ব করেন সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মো.মোখছেদুল মোমিন। বৈঠকে মুল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাপ্তাহিক কাগজ আলাপন পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক সাংবাদিক আমিনুল হক। গোলটেবিল বৈঠকে অন্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন নীলফামারী বারের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ও কমিউনিস্ট লীগ নেতা অ্যাড. তুষার কান্তি রায়,সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন, পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম,সহ সভাপতি শাহজাহান সরকার বাবুল  ও সাধারণ সম্পাদক,

মো. মোজাম্মেল হক, জাতীয় পার্টির সৈয়দপুর উপজেলা শাখার আহবায়ক শিল্পপতি সিদ্দিকুল আলম সিদ্দিক, স্বাধীনতার চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) সৈয়দপুর উপজেলা শাখার সভাপতি ডা. শেখ নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোশিয়েশন (বিএমএ) সৈয়দপুর জেলা শাখার সভাপতি ডা. মাহবুবুল হক দুলাল, আওয়ামীলীগ নেতা ও  সৈয়দপুর সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সাখাওয়াত হোসেন খোকন, সাপ্তাহিক জনসমস্যা পত্রিকা সম্পাদক প্রভাষক শওকত হায়াত শাহ্, আওয়ামীলীগ নেতা প্রকৌশলী একেএম রাশেদুজ্জামান রাশেদ, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সৈয়দপুর উপজেলার সাধারণ সম্পাদক রুহুল আলম মাস্টার প্রমুখ। বৈঠকে অন্যান্যদের মধ্যে বিভিন্ন পত্রিকায় কর্মরত সাংবাদিক,

শিক্ষক,ব্যবসায়ী নেতাসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার ৩০জন প্রতিনিধি অংশ নেন। এতে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন সাংবাদিক এম আর আলম ঝন্টু। দিনব্যাপি এ বৈঠকে ‘উন্নয়ন, সম্ভাবনা ও বঞ্চনা’ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনায় বাংলাদেশ হওয়ার পর থেকে বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সরকারের আমলে সৈয়দপুরে সর্বোচ্চ উন্নয়ন হয়েছে বলে আলোচনায় উঠে আসে। 

এছাড়া জেলার দাবিসহ রেল পৌরসভা দ্বন্দ নিরসন, আবাসন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য বিষয় ছাড়াও অন্যান্য সমস্যাগুলো আলোচকদের বক্তব্যে উঠে আসে। পরে চলমান উন্নয়ন প্রকল্পগুলো যাতে সঠিকভাবে এবং নির্দিষ্ট সময়ে বান্তবায়ন হয় এবং অতীতের ন্যায় সৈয়দপুরবাসী যাতে আর কোন বঞ্চনার শিকার না, সেজন্য বেশকিছু সুপারিশমালা প্রণয়ন করা এবং তা বাস্তবায়নের জন্য সংসদ সদস্যসহ সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য