সময় বৃদ্ধি পেয়েও চাল সববরাহ করেনি ডোমারের চুক্তিবদ্ধ ৪৯ মিলার

রতন কুমার রায়,স্টাফ রিপোর্টার: 
সময় বৃদ্ধি পেয়েও নীলফামারীর ডোমার উপজেলার সরকারি খাদ্য গুদামে চুক্তিবদ্ধ ৪৯ মিলার চাল সরবরাহ করেনি বলে জানা গেছে। উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের কার্যালয় সূত্রে জানাযায়, উপজেলার একশ’ ৩৬টি মিলারের মধ্যে একশ’ ৩৪টি মিলার সরকারি খাদ্য গুদামে চাল সরবরাহের চুক্তিবদ্ধ হয়। 
কিন্তু নির্ধারিত সময়ে নানান অজুহাতে চাল সরবরাহ করতে ব্যর্থ হয়েছে। পরবর্তীতে চাল সরবরাহের জন্য সময় বৃদ্ধি করা হলেও ৪৯ মিলার সরকারি খাদ্য গুদামে চাল সরবরাহ করেনি। এর মধ্যে ডোমার খাদ্য গুদামের অধিনে ৮০জন মিলারের মধ্যে ৩০ জন ও চিলাহাটি খাদ্য গুদামের অধিনে ৫২ জন মিলারের মধ্যে ১৯ জন মিলার চাল সরবরাহ করেনি। এদের মধ্যে দু’টি খাদ্য গুদামে দুই মিলার আংশিক চাল সরবরাহ করেছে।
চুক্তিবদ্ধ মিলাররা জানান, দাম বেশি হওয়ার কারনে চাল সরবরাহ করা সম্ভব হয়নি। চলমান ধানের বাজারে ধান ক্রয় করে চাল উৎপাদনে খরচ হচ্ছে ৪০ হতে ৪২ টাকার মতো। আর সেখানে সরকার চাল ক্রয়ের দর দিচ্ছে ৩৬ টাকা। এই অবস্থায় খাদ্য গুদামে চাল সরবরাহ করলে  প্রতি কেজিতে ৫ হতে৭ টাকা লোকশান গুনতে হবে।
উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. মাহমুদ হাসান বলেন, চাল সরবরাহের সময়সীমা বাড়ানোর পরেও চুক্তিবদ্ধ ৪৯টি মিলার চাল সরবরাহ করেনি। যে সব মিলার খাদ্য গুদামে চাল সরবরাহ করেনি তাদের তালিকা খাদ্য মন্ত্রণালয়ে প্রেরন করা হয়েছে। মন্ত্রনালয় যে সিদ্ধান্ত দিবে সে অনুযায়ি তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য