অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগে গ্রেপ্তার-১

জাহাঙ্গীর রেজা, স্টাফ রিপোর্টারঃ
নীলফামারীর ডিমলায় চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামীকে আটক করেছে ডিমলা থানা পুলিশ। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কুমারপাড়ার তেল্লাইপার এলাকার মৃত টোকরা মামুদের ছেলে ইয়াকুব আলী (৪৫) এর সঙ্গে উত্তর তিতপাড়া (রহমতপুর) গ্রামের আনারুল ইসলামের মেয়ে শাবানা আক্তার (২৫) এর ৪ বছর পূর্বে পারিবারিকভাবে বিবাহ হয়। 

বিবাহের পর শাবানার গর্ভে রিক্তা আক্তার নামে (বর্তমান বয়স ৩ তিন বছর) কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। শাবানা ২য় বার ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হলে গত বৃহস্পতিবার বিকালে শাবানার স্বামী ইয়াকুব আলী ও তার ১ম স্ত্রী শাহিদা বেগম (৪৪) শাবানার গর্ভে পুত্র সন্তান হলে ইয়াকুবের পরিবারভুক্ত লোকজন জমিজমা হতে বঞ্চিত হবে মর্মে সন্তান নষ্ট করার জন্য শাবানা আক্তারকে ঘরে আটক করে জোরপূর্বক কীটনাশক সেবন করায়। 

শাবানা কীটনাশক পান করে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে বাবার বাড়ির লোকজন খবর পেয়ে ওইদিন সন্ধ্যায় অসুস্থ শাবানাকে উদ্ধার করে ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করায়। 
ডিমলা হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় শাবানার অবস্থার অবনতি হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেন। 

রংপুর নিয়ে যাওয়ার পথে শাবানা আক্তারের মৃত্যু হয়। এ ব্যাপারে শাবানার পিতা আনারুল ইসলাম বাদী হয়ে শাবানার স্বামী ইয়াকুব আলী ও ১ম স্ত্রী শাহিদা বেগমকে নামীয়সহ অজ্ঞাতনামা ২-৩ জনকে আসামি করে গত শনিবার ডিমলা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

ডিমলা থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মামলার সূত্র ধরে শনিবার রাতে এজাহার নামীয় আসামি শাবানার স্বামী ইয়াকুব আলীকে আটক করা হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য