পঞ্চগড়ে উপবৃত্তির টাকা নিয়ে বিকাশের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ

মোঃ কামরুল ইসলাম কামু পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ 
পঞ্চগড় সদর উপজেলার দেওয়ান হাট দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর উপবৃত্তির তালিকায় নাম থাকার পর  টাকা না পেয়ে তার খোঁজে পুলিশ সুপারের বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে শিক্ষার্থীদের পক্ষে শিমু আক্তার নামে এক এসএসসির ছাত্রী।

শিক্ষার্থী ও অভিযোগ থেকে জানা গেছে, উপবৃত্তির নামের তালিকায় শিক্ষার্থীদের নাম থাকলেও কে বা কাহারা মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করে টাকা তুলছে। এ বছর এক বারও উপবৃত্তির টাকা পাইনি। উপবৃত্তির টাকা না পেয়ে বিদ্যালয় কতৃপক্ষকে জানালে কতৃপক্ষ অনুসন্ধান করে দেখে বিকাশ এজেন্টের কর্মীরা শিক্ষার্থীদের মোবাইল নম্বরের পরিবর্তে নিজেদের মোবাইল নম্বর দিয়ে তাদের সাথে প্রতারনা করেছে।

পঞ্চগড়ে ডায়নাটেক হাউজ (বিকাশ) অফিসে ততকালীন বিকাশের খন্ড কালিন কর্মীদের কোন তথ্য দিতে পারেননি। শিক্ষার্থীদের মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করে যে নম্বর দেয়া হয়েছে তাতে খন্ড কালীন দুইজন বিকাশ কর্মী আসাদ ও আলিম নাম পাওয়া গেছে।

দেওয়ান হাট দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অশোক কুমার দত্ত   জানিয়েছেন, ছাত্রীদের একাউন্ট নিবন্ধনে বিকাশ এজেন্টের কর্মীরা প্রতারণা করেছে। শিক্ষার্থীদের মোবাইল নম্বরের পরিবর্তে তাদের মোবাইল নম্বর ব্যবহার করেছে।

পঞ্চগড়ের ডায়নাটেক হাউজের (বিকাশ) ম্যানেজার মাহাবুবুর রহমান  জানান, শিক্ষার্থীদের একাউন্ট নিবন্ধন করে একটা তালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে দেয়া হয় তিনি যাচাই-বাছাই করে সাক্ষর করে আমাদের দেন। সেখানে কে কি করল আমরা কিভাবে বুঝব।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী   জানান, শিক্ষার্থীর উপবৃত্তির বিষয়টা জেলা প্রশাসক দেখেন ঠিকমত শিক্ষার্থী টাকা পেল কিনা। অভিযোগটা সেখানেই দিতে পারলে ভাল হত। যেহেতু অভিযোগ দিয়ে ফেলছে তাহলে অবশ্যই আমরা বিষয়টা দেখব।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য