পড়ে ছিলো বৃদ্ধা, উদ্ধারের পর পরিবারের কাছে তুলে দিলো পুলিশ

মো. আবু নাঈম, পঞ্চগড়: 
বৃদ্ধা কিরণ মাহি (৭০)। অসুস্থ অবস্থায় পড়েছিলো পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ পৌর শহরের মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন একটি দোকানের সামনে।  সেখান থেকে উদ্ধারের পর তাকে চিকিৎসা সহায়তা দিয়ে স্বজনদের হাতে তুলে দিয়েছেন পঞ্চগড় জেলা পুলিশ। 

ওই বৃদ্ধার বাড়ি নীলফামারী জেলার ডোমার পৌর শহরের ভাদুর স্কুল হিন্দুপাড়া এলাকায়। তিনি ওই এলাকার অনন্দা প্রসাদের স্ত্রী। শনিবার সন্ধায় তাকে উদ্ধার করা হয় এবং রাত সাড়ে ৯ টায় পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে দেবীগঞ্জ থানা পুলিশ।  

পরিবারের লোকজন জানান, বৃদ্ধা কিরণ মাহি মানসিক ভাবে অসুস্থ। গত শুক্রবারে তিনি বাড়ি থেকে বের হয়ে আসেন। জানা যায়, দীর্ঘ সময় ধরে অসুস্থ অবস্থায় ওই দোকানের সামনে পড়েছিলো বৃদ্ধা কিরণ মাহি। খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে অসুস্থ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করেন। 

শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখে উপ-পরিদর্শক মো. শফিকুল ইসলাম বৃদ্ধাকে দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।  পুলিশ জানান, জিজ্ঞাসাবাদে বৃদ্ধা তার নাম-ঠিকানা কিংবা কোত্থেকে এসেছেন কিছুই বলতে পারেননি। 

তবে অস্পষ্টভাবে বৃদ্ধা বলেন, তার বাড়ি কোন এক স্থানীয় ইউপি সদস্যের বাড়ির পাশে। সেই সূত্র ধরেই পুলিশ আশপাশের সকল থানার ইউপি সদস্যদের সাথে যোগাযোগ শুরু করেন। তাঁদেরকে বৃদ্ধার দৈহিক বর্ণনাও জানানো হয়। যোগাযোগের এক পর্যায়ে জানা যায় বৃদ্ধার বাড়ি নীলফামারী জেলার ডোমার পৌর শহরে। 

সেখানকার মহিলা সংরক্ষিত আসনের সদস্য ইবনে কুলসুম এর সাথে যোগাযোগের পর বৃদ্ধার পরিচয় ও স্বজনদদের খোঁজ মিলে।  দেবীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে পড়ে আছে এমন খবর পেয়ে আমরা ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করি এবং পেশাগত দায়িত্ব হিসেবে তাকে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেই।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য