নারী সংগঠক ডেইজি'র সহায়তায় বাক প্রতিবন্ধি রায়হানকে খোঁজে পেল তার মা-বাবা

মোহাম্মদ হায়দার আলী, বিশেষ প্রতিনিধিঃ
মানসিক ও বাক প্রতিবন্ধি রায়হান তার মা-বাবার একমাত্র সন্তান। তার পিতার নাম রুহুল আমীন।তিনি একজন আনছার ব্যাটেলিয়ান সদস্য। তিনি ভোলা সদর নিবাসী। গত ২৪/৭/২০২০ইং রোজ শুক্রবার সকালে এই বাক প্রতিবন্ধি ছেলেটি নিখোঁজ হয়ে গেলে সারাদিন-রাত মাইকিং করে নানান জায়গায় খোঁজা-খুঁজি করেন তার মা-বাবা ও পরিবারের লোকজন 

এই খবর জানতে পারেন কক্সবাজার মহিলা সমিতির কেন্দ্রীয় সভানেত্রী ও এ্যাকশন টুওয়ার্ড'স হিউমিনিটির চেয়ারম্যান মানবতার জননী ডেইজি ফাতিমা আনকিছ। এই নারী নেত্রী খবরটি শুনে তার সংগঠনের একদল সেচছা সেবক টিম কে ছেলেটি খোঁজ করার দায়িত্ব দেন।

তারই পরিপ্রেক্ষিতে আজ ২৫/৭/২০২০ইং সকাল আনুমানিক ৯ঃ৩০ টায় সেচ্ছাসেবক ড্রাইভার নুরুল ইসলাম কক্সবাজার সমিতির পাড়া সংলগ্ন ৬নং গলির শফি আলম, সোনা মিয়ার বাড়ীর সামনে থেকে ছেলেটি কে খোঁজে পায়। পরবর্তীতে ছেলেটিকে নুরুল ইসলাম চেয়ারপারসন ফাতেমা আনকিছ এর নিকট হস্তান্তর করেন।

নিখোঁজ রায়হান কে আজ নারী সংগঠক ডেইজি ফাতেমা তার পরিবারের কাছে তুলে দেন।এ নিষয়ে জানতে চাইলে তিনি দৈনিক অপরাধ অনুসন্ধান এর নির্বাহী সম্পাদক সাংবাদিক হায়দার আলী এম এ  কে জানান। তিনি মাইকিং শুনে জানতে পারেন রায়হান নামের এক বাক প্রতিবন্ধি ছেলে হারিয়ে গেছে। 

তার মা -বাবা চারিদিকে খোঁজা খুঁজি করছে, আর ডেইজি ফাতেমা যেহেতু মানবতার কল্যানে অসহায়দের সহায়তায় কাজ করে যাচ্ছেন তাই তিনিও তার সংগঠনের সেচছা সেবক বাহিনীদের কে নির্দেশ দিলেন যেন ছেলেটি কে খুঁজে তার মা-বাবার কাছে ফিরিয়ে দেয়া হয়। 

তারই ফলশ্রুতিতে বাক প্রতিবন্ধি রায়হান কে ডেইজি ফাতেমা আনকিছ এর সেচ্ছাসেবক দলের একান্ত প্রচেষ্টায় তার মায়ের কাছে তুলে দিতে সক্ষম হন। তিনি আরও জানান, ছেলেটিকে তার পরিবারের নিকট তুলে দেয়ার সময় তার হাতে ও পায়ে বেধে রাখার দাগ দেখা যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য