জমি আছে বাড়ি নেই' প্রকল্পের ঘর পেল যুবলীগ নেতা

মোঃ নাজমুল হোসেন, দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ 
দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের বিজয়পুর গ্রামে 'জমি আছে বাড়ি নেই' প্রকল্পের ঘর পেল ওই ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক।

 স্টোক ব্যবসায়ী ভাবকী গ্রামের মনসুর আলীর ছেলে বিদেশ ফেরত মোঃ জহিরুল ইসলাম জাহিদ। ২ লক্ষ ৯৯ হাজার টাকা মূল্যের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান টি-আর-কাবিটা কর্মসূচির আওতায় দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দকৃত 'জমি আছে বাড়ি নেই' 


প্রকল্পের ঘর সচ্ছল পরিবার জাহিরুল ইসলামের নামে বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার জমি আছে ঘর নেই সে সব পরিবারকে বিনা মূল্যে ঘর প্রদান করে যাচ্ছেন। 

কিন্তু বীরগঞ্জ উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নে পুরাই ভিন্ন চিত্র। ভোগনগর ইউনিয়নের ৪নং ওর্য়াডের যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জহিরুল ইসলাম জাহিদ ত্রাণের ঘরের সাথে আরও নতুন ৪টি ঘর নির্মাণ করছেন নব্য যুবলীগে আসা এই নেতা।

স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতা সহ অনেকেই জানান, জহিরুল ইসলাম এই দলে প্রায় চার বছর আগে স্থানীয় এক আওয়ামীলীগের নেতার হাত ধরে প্রবেশ করেছেন যুবলীগে ও এছাড়াও  তাঁদের পরিবারের সদস্যরা বিএনপি দলের সাথে জড়িত । 

জহিরুল ৭ বছর মালয়েশিয়ায় প্রবাস জীবন যাপন করে প্রায় ৮ বছর পূর্বে এই দেশে আসেন । যে জমি দেখিয়ে সরকারি ভাবে ঘর পেয়েছেন সে জমি ১০ শতক জমি প্রায় ১০ লক্ষ টাকা ক্রয় করেছিলেন এই নব্য যুবলীগ নেতা। 


জহিরুল সাধারণরত ধান, ভুট্টা,গম সহ অন্যান্য  উপাদান স্টোক করে ব্যবসা করেন। জহিরুলের হোন্ডা লিভো ১১০ সিসির নিউ ভার্সনের একটি মোটরসাইকেল সহ প্রায় ২০ লক্ষ টাকার সম্পদও আছে বলে জানান তারা। 


এত কিছু থাকার পরেও জহিরুল কেমন করে 'জমি আছে বাড়ি নেই' প্রকল্পের ঘর পেল তা এলাকাবাসীর অজানা। সুষ্ঠু তদন্ত করে জহিরুল সহ দোষীদের বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতা সহ এলাকাবাসী । 

জহিরুল ইসলামের সাথে এব্যাপারে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি কোনো বক্তব্য দিতে রাজি হন নি। 

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. ছানাউল্লাহ্ কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সে যদি নিজে করে আমি কি বাঁধা দিতে পারবো,ও করছে বাকি ঘর নিজের টাকায়, অন্য ঘর করলে অসুবিধা কি? 


উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.ইয়ামিন হোসেন বলেন, এ ব্যাপারে তদন্ত করা হবে এবং জহিরুলের সচ্ছলতার সত্যতা পাওয়া গেলে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য